লালমনিরহাটে বেড়েছে তিস্তার ভাঙন

প্রকাশিত: ০৭:০৯, ০৯ আগস্ট ২০২০

আপডেট: ০৭:০৯, ০৯ আগস্ট ২০২০

লালমনিরহাট সংবাদদাতা: বন্যার পানি কমতে থাকায় লালমনিরহাটে তিস্তার ভাঙন বেড়েছে। প্রতিদিনই ভাঙছে নতুন নতুন এলাকা। নদী গর্ভে চলে যাচ্ছে ফসলি জমি, বসতভিটাসহ নানা স্থাপনা। নিঃস্ব হয়েছে হাজার হাজার পরিবার। ভুক্তভোগিদের অভিযোগ, নদী ভাঙন রোধে স্থায়ী কোন পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার তিস্তা পারের বাসিন্দা হাফিজুর রহমান। ৮০ বছরের দীর্ঘ জীবনে তিনি দেখেছেন নদীর অনেক ভয়াবহ রূপ। ভাঙনের হাত থেকে বাঁচতে বারবার বাড়ি সরিয়েছেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না। তিস্তা কেড়ে নিলো তার সর্বস্ব। ভিটে মাটি হারিয়ে এখন দিশেহারা তিনি। 

হাফিজুরের মত অনেকে এ পর্যন্ত ১০ থেকে ১৮ বার বাড়ি সরিয়েছেন। তাদের কেউ রক্ষা পেয়েছেন কেউ পাননি। তিস্তার ভাঙ্গনে বিলীন হয়েছে দহগ্রাম, মহিষখোচা, রাজপুরসহ জেলার ২০টি গ্রামের অনেক এলাকা। নদী গর্ভে চলে গেছে ফসলি জমি, হাটবাজার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ ও মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন স্থাপনা। নিঃস্ব হয়েছে অন্তত ৩০ হাজার পরিবার। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, নদী ভাঙন থেকে রক্ষায় বারবার প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলেও কোন পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। 

লালমনিরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান জানালেন, তিস্তার ভাঙন রোধে একটি মেগা প্রকল্প সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। তিনি বললেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে তিস্তাপারের মানুষের এই দুর্ভোগ আর থাকবে না।

এই বিভাগের আরো খবর

উত্তরে পানি কমেছে, বেড়েছে ভাঙন

ডেস্ক প্রতিবেদন : দেশের উত্তরাঞ্চলের...

বিস্তারিত
মাগুরার গড়াই নদী ভাঙনে আতঙ্কে এলাকাবাসী

মাগুরা সংবাদদাতা: মাগুরার শ্রীপুর...

বিস্তারিত
বন্যায় প্রায় ৫৭৭২ কোটি টাকার ক্ষতি

নিজস্ব প্রতিবেদক: এ বছরের বন্যায় এখন...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *