ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৭, ৬ কার্তিক ১৪২৪, ৩০ মহাররম ১৪৩৯
শিরোনামঃ
উন্নত বাংলাদেশ গড়তে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখুন: জয় বেড়িবাঁধ ভেঙে বিভিন্ন জেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, ব্যাহত ফেরি চলাচল টানা বৃষ্টিতে ডুবে গেছে ঢাকার বিভিন্ন এলাকা টানা বৃষ্টিতে দেশের বিভিন্ন বন্দরের কার্যক্রমে স্থবিরতা ডি-এইট সম্মেলনে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পেয়েছে রোহিঙ্গা ইস্যু আওয়ামী লীগে জঙ্গি-সন্ত্রাসি ও চাঁদাবাজের ঠাঁই নেই: ওবায়দুল সু চি’র নীরবতায় রোহিঙ্গাদের ওপর সেনা নিপীড়ন চলছে: ইউনূস ভারী বর্ষণে কলাপাড়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে ১১ গ্রাম প্লাবিত রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ: আমীর খসরু মালয়েশিয়ায় ৩৯ বাংলাদেশিসহ ১১৩ অভিবাসী আটক একটি গোষ্ঠী রোহিঙ্গাদের সন্ত্রাসী কাজে ব্যবহার করতে চায়: কামরুল প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার আহ্বান ইনজুরির কারণে শেষ ওয়ানডেতেও খেলতে পারছেন না তামিম দিনাজপুর ও নেত্রকোনার চাষিরা দিশাহারা স্পেনের অংশ কাতালোনিয়া আছে, থাকবে: রাজা ষষ্ঠ ফিলিপ আলফাডাঙ্গায় মধুমতির ভাঙন এলাকায় ড্রেজিং প্রকল্প উদ্বোধন আফগানিস্তানে দু’টি মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলা, নিহত ৭২ হাঁস পালন করে ঝিনাইদহের শতাধিক খামারির মুখে হাসি ড্রাগন চাষে লাভবান হচ্ছেন পটুয়াখালীর চাষিরা ভারী বর্ষণে কলাপাড়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে ১১ গ্রাম প্লাবিত

৭ মার্চ মনে করিয়ে দেয় জনকের ডাক : 'এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম'

প্রকাশিত: ০৪:১২ , ০৭ মার্চ ২০১৭ আপডেট: ০৪:১২ , ০৭ মার্চ ২০১৭

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ আজ। বাঙালির স্বাধীনতার আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের এক স্বর্ণোজ্জ্বল দিন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণের কারনে সাতই মার্চ বাঙালির ইতিহাসে এক মাইলফলক দিবস হিসেবে স্থায়ী আসন করে নেয়।

এদিন তিনি সেসময়কার রেসকোর্স ময়দান, বর্তনান সোহরাওয়ার্দি উদ্যানের উদার প্রাঙ্গণে লক্ষ লক্ষ বাঙালির সামনে দাঁড়িয়ে স্বাধীনতার ডাক দেন। ঘোষণা দেন পাকিস্তানি শাসকদের বিরুদ্ধে অসহযোগ আন্দোলনের। ঘরে ঘরে যুদ্ধের প্রস্তুতির নির্দেশও দেন তিনি।

একাত্তরে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বলতে যে-চিরচেনা কণ্ঠ এবং ঐতিহাসিক নির্দেশনা প্রজন্ম থেকে প্রজন্মের কানে বার বার বেজে ওঠে, সেটাই বাঙালির স্বাধীনতা সংগ্রামের এক মোড় ঘোরানো পর্ব।

সেসময়কার বাঙালির স্বাধীনতার আকাঙ্ক্ষার বারুদস্তূপে বঙ্গবন্ধুর এই ডাক যে আগুনের স্ফুলিঙ্গের মতো দেশের সব কোণায় ছড়িয়ে পড়েছিল, ইতিহাসের পরবর্তী অগ্রগতির ধারাবাহিকতা তারই সাক্ষ্য দেয়।

৭ মার্চের সেই ভাষণকে পশ্চিম পাকিস্তানের শাসকরা এতটাই ভয় পেয়েছিল যে, ঢাকার বেতার থেকে তা সরাসরি সম্প্রচারের পূর্বঘোষণা দেয়া হলেও শেষ পর্যন্ত প্রচার করতে দেয়া হয় নি।

এর প্রতিবাদে বিক্ষুব্ধ বাঙালি বেতারকর্মীরা শাহবাগ বেতার কেন্দ্র ত্যাগ করে রেসকোর্সে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক জনসভায় যোগ দেন।

রেসকোর্সে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ ছিল ২২ মিনিট দীর্ঘ। এদিন সকালে ঢাকায় মার্কিন রাষ্ট্রদূত বঙ্গবন্ধুর সাথে সাক্ষাত করে স্বাধীনতার ঘোষণা দেয়া থেকে তাঁকে বিরত থাকতে বলেন, এবং দেয়া হলে যুক্তরাষ্ট্র এর বিরুদ্ধে থাকবে বলে জানিয়ে দেন।

এদিন জেনারেল টিক্কা খান পূর্ব পাকিস্তানের গভর্নর ও সামরিক আইন প্রশাসক হিসেবে ঢাকায় পৌছে, যার নেতৃত্বে শুরু হয় মার্চের শেষে গণহত্যা ও বাঙালি নিধনযজ্ঞ।

কিন্তু কোনো হুমকির তোয়াক্কা না করে বঙ্গবন্ধু স্পষ্টতই স্বাধীনতার জন্য লড়াইয়ের ডাক দেন। পাকিস্তানি শাসকদের সকল সহযোগিতা বন্ধ করে দিতে তিনি বাঙালিকে অসহযোগ আন্দোলন শুরুর আহ্বান জানান।

 

এই সম্পর্কিত আরো খবর

আওয়ামী লীগে জঙ্গি-সন্ত্রাসি ও চাঁদাবাজের ঠাঁই নেই: ওবায়দুল

সিলেট প্রতিনিধি: আওয়ামী লীগে কোনো জঙ্গি-সন্ত্রাসি ও চাঁদাবাজের ঠাঁই হবে না বলে মন্তব্য করেছেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং  সড়ক পরিবহণ...

নির্বাচন বিশ্লেষকদের অভিমত

ইসিকে দেয়া প্রস্তাব বাস্তবায়নে দলগুলোর ঐকমত্য জরুরি

নিজস্ব প্রতিবেদক: সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য কমিশনের সাথে সংলাপে রাজনৈতিক দলগুলোর পক্ষ থেকে যে সব প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে, তা বাস্তবায়নে তাদের...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is