কুড়িগ্রামে বন্যায় ঘর ছাড়া পাঁচ শতাধিক পরিবার

প্রকাশিত: ১২:২১, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

আপডেট: ১২:২১, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

কুড়িগ্রাম সংবাদদাতা: বন্যা নেমে গেলেও কুড়িগ্রামের চর রাজিবপুর উপজেলার মোহনগঞ্জ ইউনিয়নের প্রায় পাঁচ শতাধিক পরিবার খোলা আকাশের নিচে দিনযাপন করছে।

কুড়িগ্রাম জেলা শহর থেকে ব্রহ্মপূত্র নদ দ্বারা বিচ্ছিন্ন রৌমারী ও চর রাজিবপুর উপজেলা। চলতি বছরের বন্যা ও নদী ভাঙনে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে এই দু’উপজেলায়। বন্যা ও নদী ভাঙনে চর রাজিবপুর উপজেলার মোহনগঞ্জ ইউনিয়নের ফকিরপাড়া, জিগাপাড়া, চর নেওয়াজি, নয়ারচর, পাটাদহ পাড়া, চড়ুইহাটি, নাওশালা ও বড়বেড়চরসহ বেশ কয়েকটি এলাকার প্রায় পাঁচ শতাধিক মানুষ বাড়িঘর হারিয়ে এখন খোলা আকাশে দিনযাপন করছে। a

বন্যার ফলে বেশ কিছু বাড়ি ভেঙে গেছে। এছাড়াও সমতল এলাকায় তীব্র স্রোতে বাড়িঘর মাটিতে পরে গেছে। হাতে টাকা পয়সা না থাকায় অনেকে বাড়িঘর মেরামত করতে পারছে না। কেউ কেউ অধিক সুদে টাকা ধার নিয়ে বাড়ির কাজ করছে।

এদিকে, নিরাপত্তার জন্য সরকারের কাছে কয়েকটি গুচ্ছগ্রাম নির্মানের দাবি জানান মোহনগঞ্জ ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি।

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *