বই উৎসব নিয়ে সংশয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়

প্রকাশিত: ১০:০৯, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

আপডেট: ১১:২৭, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

শাহনাজ ইয়াসমিন: করোনা পরিস্থিতির কারণে এ বছর বই উৎসব হবে কিনা তা নিয়ে সংশয়ে রয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তারা জানিয়েছে, যদি ডিসেম্বরেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হয় তাহলে জানুয়ারির এক তারিখে বই উৎসব করা সম্ভব। আর যদি তবে, করোনার কারণে বই উৎসব না হলে বিকল্প ব্যবস্থা কি হতে পারে তা নিয়ে ভাবছে সরকার। 

২০১০ সাল থেকে পহেলা জানুয়ারি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়ার উৎসব পালন করছে সরকার। কিন্তু, এবার মহামারী করোনা ভাইরাসের কারনে বই উৎসব করা সম্ভব হবে কিনা তা নিয়ে সংশয়ে রয়েছে শিক্ষা মন্ত্রনালয়। গেল ১৭ মার্চ থেকে এখন পর্যন্ত সারাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে। বাতিল করা হয়েছে, পিইসি এবং জেএসসি পরীক্ষাও। এইচএসসি পরীক্ষাও নেয়া সম্ভব হয়নি।  

এ বছর মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য ২৪ কোটি নতুন বই ছাপানোর প্রস্তুতি চলছে। তবে, প্রতিবারের মত পহেলা জানুয়ারী বই উৎসব করা যাবে কিনা সে সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি বলে জানান শিক্ষা সচিব। 

প্রাথমিক স্তরের জন্য এবার নতুন বই ছাপানো হচ্ছে প্রায় ১১ কোটি। করোনা ভাইরাসের কারনে দেরী হলেও নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই নতুন বই ছাপানোর কাজ শেষ হবে, জানান প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব। 

এদিকে, জাতীয় পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড-এনসিটিবি জানিয়েছে, ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে বই ছাপানোর কাজ শেষ করে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠিয়ে দেয়া হবে। 

করোনা মহামারী কাটিয়ে আবার শিক্ষার্থীদের প্রানচাঞ্চল্যে ভরে উঠবে শিক্ষাঙ্গন, এই আশায় শিক্ষার্থী, অভিভাবক এবং শিক্ষকরা।
 

এই বিভাগের আরো খবর

পেঁয়াজ আমদানিতে ভারত নির্ভরতা কমাতে চায় সরকার

শাহনাজ ইয়াসমিন: পেঁয়াজ আমদানিতে ভারত...

বিস্তারিত
নারী ও শিশুদের সুরক্ষায় গঠিত কমিটি নিষ্ক্রিয়

শাহনাজ ইয়াসমিন: নারী ও শিশুদের প্রতি...

বিস্তারিত
অবাধে বিক্রি হচ্ছে যৌন উত্তেজক ওষুধ

আশিক মাহমুদ: বড় বড় ফ্যার্মেসি থেকে...

বিস্তারিত
নভেম্বরেও খুলবে না শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান

শাহনাজ ইয়াসমিন: করোনার দ্বিতীয়...

বিস্তারিত
শুক্রবার থেকে খুলছে সিনেমা হল

নিজস্ব প্রতিবেদক: দীর্ঘদিন বন্ধ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *