ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ১ পৌষ ১৪২৪, ২৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯
শিরোনামঃ
শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আজ  রায়েরবাজার বধ্যভূমিতে সকল যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দাবি ওয়ান প্লানেট সম্মেলন শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী জলবায়ু খাতে ৭ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের পরিকল্পনা সরকারের সৌদি আরবে জিয়া পরিবারের বিপুল অর্থ, তদন্ত করবে দুদক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদ নির্বাচন দাবিতে সোচ্চার হোন থার্টিফার্স্ট নাইটে উন্মুক্ত স্থানে কোনো অনুষ্ঠান নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শিক্ষা অধিদপ্তর-বোর্ড ও বিজি প্রেস থেকে প্রশ্ন ফাঁস হয়: দুদক বিএনপি নির্বাচনে না আসলে গণতন্ত্র বাধাগ্রস্ত হবে না পল্লী বিদ্যুতে অতিরিক্ত ইলেকট্রিশিয়ান নিয়োগ দেওয়ায় মানববন্ধন রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা তুঙ্গে হাইকোর্টে লক্ষ্মীপুরের ইউএনওর ক্ষমা প্রার্থনা খাগড়াছড়িতে ৬ সশস্ত্র যুবক আটক চট্টগ্রামের সেবা সমূহ ডিজিটালাইজড হওয়ার তাগিদ দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে সারা দেশে বিএনপির বিক্ষোভ আকায়েদের বিরুদ্ধে মার্কিন পুলিশের তিন অভিযোগ আশুগঞ্জে আমন চাল সংগ্রহ অভিযান শুরু ভূমিমন্ত্রীর ছেলে তমালকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ গাইবান্ধায় যুবলীগ নেতার ও বরগুনায় জেলের মরদেহ উদ্ধার ঢামেক হাসপাতাল দিচ্ছে ডিজিটাল ডেথ সার্টিফিকেট

ইউনেস্কোর শর্ত মেনেই রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্র বানাবে সরকার

প্রকাশিত: ০৪:৫৩ , ০৯ জুলাই ২০১৭ আপডেট: ০৪:৫৩ , ০৯ জুলাই ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র নিয়ে সরকারের বৈজ্ঞানিক যুক্তি মেনে নিয়েছে ইউনেস্কো। তবে তাদের দেয়া ভারি কলকারখানা ও অবকাঠামো নির্মাণ না করার শর্ত মেনেই রামপালে এই বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ করবে সরকার।

আজ রোববার রাজধানীতে বিদ্যুৎ ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী। এতে রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণে কোনো বাধা রইলো বলেও জানান তিনি। নাজমুল সাঈদকে সাথে নিয়ে আরো জানাচ্ছেন কামরান করিম।

বাগেরহাটের রামপালে বাংলাদেশ-ভারত যৌথ উদ্যোগে ১৩২০ মেগাওয়াটের কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণের পর থেকে বিভিন্ন মহল থেকে এর বিরোধিতা করা হয়। তাদের আশংকা-- এতে বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনের ক্ষতি হবে।

জাতিসংঘের শিক্ষা বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কোর পক্ষ থেকেও আসে আপত্তি। তবে সরকার বরাবরই বলে এসেছে-- এই বিদ্যুৎ কেন্দ্র হবে সুপার ক্রিটিক্যাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে, যার ফলে এতে সুন্দরবনের কোনো ক্ষতি হবে না।

সরকারের বৈজ্ঞানিক যুক্তি মেনে নিয়ে গেলো বৃহস্পতিবার আপত্তি প্রত্যাহার করে নেয় ইউনেস্কো। বিদ্যুৎ ভবনে সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানান প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক ই-ইলাহী চৌধুরী।

তিনি আরো বলেন, পোল্যান্ডে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ কমিটির ৪১তম অধিবেশনে বিশ্বের ২১টি দেশের মধ্যে ১২টি দেশই রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের পক্ষে মত দিয়েছে। ফলে এই বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণে আরে কোন বাধা নেই।

২০১৯ সাল নাগাদ রামপাল কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে দেশবাসী বিদ্যুৎ পাবে বলে জানান প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি উপদেষ্টা। এ সময় বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ ও বিদ্যুৎ সচিবও উপস্থিত ছিলেন।
 

এই বিভাগের আরো খবর

শিক্ষার্থীদের প্রতি সাবেক ছাত্রনেতাদের আহ্বান

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদ নির্বাচন দাবিতে সোচ্চার হোন

নিজস্ব প্রতিবেদক: পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ছাত্র সংসদ নির্বাচনের দাবি আদায়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সোচ্চার হওয়ার দাবি জানিয়েছেন সাবেক...

বিএনপি নির্বাচনে না আসলে গণতন্ত্র বাধাগ্রস্ত হবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপি নির্বাচনে না আসলেও গণতন্ত্রের পথে কোনো বাধার সৃষ্টি হবে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক...

ক্ষমতা ধরে রাখতেই একতরফা নির্বাচনের ষড়যন্ত্র হচ্ছে: রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক: ক্ষমতা ধরে রাখতে আওয়ামী লীগ আবারও একতরফা নির্বাচনের ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। সম্প্রতি আওয়ামী লীগই...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is