কক্সবাজারে সুগন্ধা পয়েন্টে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১০

প্রকাশিত: ০৮:২৮, ১৭ অক্টোবর ২০২০

আপডেট: ০৮:২৮, ১৭ অক্টোবর ২০২০

কক্সবাজার সংবাদদাতা: কক্সবাজারের কলাতলী সুগন্ধা পয়েন্টের ৫২টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের সময় ব্যবসায়ি ও পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে সাংবাদিক, পুলিশ ও ব্যবসায়িসহ ১০ জন আহত হয়েছে। আজ (শনিবার) বিকেলে দোকানপাটগুলো উচ্ছেদের সময় এই সংঘর্ষ হয়। 

কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সচিব আবু জাফর রাশেদ জানান, উচ্ছেদ অভিযান শুরুর সাথে সাথে ব্যবসায়িরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুঁড়তে থাকে। বিক্ষোভ করে উচ্ছেদ কার্যক্রমে বাধা দেয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ফাঁকা গুলি, রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল ছুড়ে। এসময় অন্তত ১০ জন আহত হলে তাদেরকে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। 

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের নির্দেশনার আলোকে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন ও কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ যৌথভাবে এ অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে নেতৃত্ব দেন কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সচিব আবু জাফর রাশেদ, কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম এবং কক্সবাজার সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ শাহরিয়ার মোক্তার। 

এর আগে ১৫ অক্টোবর দুপুরে প্রশাসনের লোকজন সেখানে উচ্ছেদ অভিযানে যান। এসময় ব্যবসায়ীদের মালামাল সরাতে এক দিনের সময় দেয়া হয়। 

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের কলাতলী সুগন্ধা পয়েন্টে ৫২ টি অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নিতে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ২০১৮ সালের ১০ এপ্রিল নোটিশ দেয়। ব্যাবসায়ীরা একটি রিট আবেদন দায়ের করলে ২০১৮ সালের ১৬ এপ্রিল হাইকোর্ট রুল জারি করে উচ্ছেদে স্থগিতাদেশ দেন। এর বিরুদ্ধে ভূমি মন্ত্রণালয় ও রাষ্ট্রপক্ষ আপিল বিভাগে আবেদন করে। 

পরে, গত ১ অক্টোবর সমুদ্র সৈকতের কলাতলীর সুগন্ধা পয়েন্টে ৫২ টি স্থাপনা উচ্ছেদে হাইকোর্টের দেওয়া রুল ও স্থগিতাদেশ খারিজ করে দেয় আপিল বিভাগ। ভূমি মন্ত্রণালয় ও রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন ভার্চুয়াল আপিল বেঞ্চ এ রায় দেন। ফলে ওই ৫২ টি স্থাপনা উচ্ছেদে কোনো বাধা না থাকায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসন ও কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ যৌথভাবে সুগন্ধা পয়েন্টের এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের উদ্যোগ নেয়। 

এই বিভাগের আরো খবর

কক্সবাজারের আকাশে রঙ-বেরঙের ঘুড়ি

কক্সবাজার সংবাদদাতা: কক্সবাজার...

বিস্তারিত
গোবিন্দগঞ্জে জাল ভোট দেওয়ার সময় ২ জন আটক

গাইবান্ধা সংবাদদাতা: গাইবান্ধার...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *