নির্যাতনে রায়হানের মৃত্যু; ৩ পুলিশ সদস্যের জবানবন্দি

প্রকাশিত: ০৮:০৩, ১৯ অক্টোবর ২০২০

আপডেট: ০৮:০৩, ১৯ অক্টোবর ২০২০

সিলেট সংবাদদাতা: সিলেটের বন্দরবাজার ফাঁড়িতে পুলিশ হেফাজতে রায়হানের মৃত্যুর ঘটনায় করা মামলায় আদালতে প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে সাক্ষী দিয়েছেন পুলিশ সদস্য। আজ (সামবার) দুপুরে সিলেটের অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর আদালতের বিচারক মো. জিহাদুর রহমানের আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন তারা।

দেলোয়ার, সাইদুর শামীম নামের এই তিন পুলিশ কনস্টেবল বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত রয়েছেন। রায়হানকে নির্যাতনের ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন তারা।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআইয়ের পরিদর্শক মহিদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তবে সাক্ষীরা আদালতে কি বলেছেন এবং কারো নাম বলেছেন কী না ব্যাপারে কিছু জানাননি তিনি।

গত ১১ অক্টোবর ভোরে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে পুলিশের নির্যাতনের শিকার হন রায়হান আহমদ (৩৪)। রোববার সকালে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় ১২ অক্টোবর রাতে অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে সিলেট কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন রায়হানের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার।

এরপর অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করতে পুলিশের পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হলে অভিযোগের প্রাথমিক প্রমাণ পায় তারা।

পরে কমিটির সুপারিশে বন্দরবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূইয়া, কনস্টেবল হারুনুর রশিদ, তৌহিদ মিয়া টিটুচন্দ্র দাসকে সাময়িক বরখাস্ত এবং এএসআই আশেক এলাহী, এএসআই কুতুব আলী কনস্টেবল সজিব হোসেনকে প্রত্যাহার করা হয়। এরপর থেকেই প্রধান সন্দেহভাজন এসআই আকবর হোসেন ভুঁইয়া এখনো আত্মগোপনে আছেন। এ মামলায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

এই বিভাগের আরো খবর

১৭ ভারতীয় জেলেকে কারাগারে প্রেরণ

মোংলা সংবাদদাতা: বঙ্গোপসাগরের...

বিস্তারিত
খুলনায় গৌতম হত্যায় ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

খুলনা সংবাদদাতা: খুলনায় গৌতম হত্যা...

বিস্তারিত
বিএনপির ৬৫ নেতার জামিন আপিলে বহাল

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীতে বাসে...

বিস্তারিত
পিকে হালদারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিদেশে পালিয়ে থাকা...

বিস্তারিত
বাউল শিল্পী রিতার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ডিজিটাল নিরাপত্তা...

বিস্তারিত
পিকে হালদার ইস্যুতে হাইকোর্টের অসন্তোষ

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিদেশে পালিয়ে থাকা...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *