ফুডপান্ডার সাড়ে ৩ কোটি টাকা ভ্যাট ফাঁকি

প্রকাশিত: ০৬:২৯, ২৮ অক্টোবর ২০২০

আপডেট: ০৭:০০, ২৮ অক্টোবর ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকার ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগে দেশের বৃহৎ অনলাইন খাবার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ফুডপান্ডার বিরুদ্ধে মামলা করেছে শুল্ক গোয়েন্দা। ভুল সেবা কোড ব্যবহার, প্রকৃত বিক্রয় তথ্য গোপন এবং উৎসে ভ্যাট না দেয়ায় ভ্যাট আইন অনুযায়ী, প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে আজ (বুধবার) ভ্যাট গোয়েন্দা মামলা দায়ের করেছে।

জানা গেছে, ফুডপান্ডা পণ্য বিক্রয় বাবদ ৫৩ লাখ ১০ হাজার ৭৪ টাকা, বাড়িভাড়া বাবদ ৫৬ লাখ ৬৬ হাজার ২৬ টাকা এবং উৎসে কর্তন বাবদ ১ কোটি ২৪ লাখ ৩৫ হাজার ৫৫৩ টাকাসহ মোট ২ কোটি ৩৪ লাখ ১১ হাজার ৬৫৩ টাকা ভ্যাট ফাঁকি দিয়েছে। এর উপর সুদ বাবদ আরো ১ কোটি ৫ লাখ ৪০,২৬০ টাকা প্রযোজ্য হবে। অর্থাৎ প্রতিষ্ঠানটি সর্বমোট ৩ কোটি ৪০ লাখ টাকার ভ্যাট ফাঁকি দিয়েছে।

ভ্যাট ফাঁকির সুনির্দিষ্ট অভিযোগে ফুডপান্ডা মূল অফিসে ভ্যাট গোয়েন্দার একটি দল গত ১৫ অক্টোবর আকস্মিক অভিযান পরিচালনা করে। ভ্যাট গোয়েন্দার উপ-পরিচালক নাজমুন্নাহার কায়সার সহকারী পরিচালক মো. মহিউদ্দীন অভিযানটা পরিচালনা করেন।

অভিযানে প্রতিষ্ঠানের ভ্যাট সংক্রান্ত নথিপত্র এবং কম্পিউটার তল্লাশি করা হয়। তল্লাশির এক পর্যায়ে প্রতিষ্ঠানটির উর্ধতন কর্মকর্তার ল্যাপটপে মাসিক বিক্রয়ের কিছু গোপন তথ্য পাওয়া যায়। গোয়েন্দারা এর সাথে আরো কিছু বাণিজ্যিক দলিলাদি জব্দ করে। সেগুলো বিশ্লেষণ করে ব্যাপক ভ্যাট ফাঁকির প্রমাণ পান তারা।

প্রতিষ্ঠানটির ভ্যাট সংক্রান্ত দলিলাদি বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, তারা তথ্য প্রযুক্তি সেবার (সেবার কোড এস-০৯৯.১০) আওতায় নিবন্ধন নিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করছে। এই কোডটি কোনভাবেই তাদের ব্যবসার সাথে সঙ্গতিপূর্ণ না হওয়া সত্ত্বেও বাড়ি ভাড়ার উপর অবৈধভাবে শূণ্য হারে ভ্যাট সুবিধা নেয়ার উদ্দেশ্যে তা ব্যবহার করে আসছে।

ফুডপান্ডা প্রতিষ্ঠানটি মূলত ইলেকট্রনিক নেটওয়ার্ক (অনলাইন প্লাটফর্ম) ব্যবহার করে পণ্য বিক্রয় করে থাকে, যার প্রকৃত সেবার কোড এস-০৯৯.৬০। এই কোডের আওতায় ভ্যাট  % এবং বাড়ি ভাড়ার উপর ১৫% ভ্যাট প্রযোজ্য।

প্রতিষ্ঠানের কম্পিউটার থেকে জব্দকৃত তথ্য অনুযায়ী ২০১৯ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের জানুয়ারি এপ্রিল মাসে মোট ২৭ কোটি ৫৮ লাখ ৫৭ হাজার ৫১৭ টাকার বিক্রয় তথ্য পাওয়া যায়। একই সময়ে প্রতিষ্ঠান স্থানীয় গুলশান ভ্যাট সার্কেলে দাখিলপত্রে ১৫ কোটি ৬৫ লাখ ১৯ হাজার ৯৭২ টাকা বিক্রয়মূল্য প্রদর্শন করেছে।

এক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানটি গত   মাসে মোট ১১ কোটি ৯৩ লাখ ৩৭ হাজার ৫৪৫ টাকা বিক্রয়তথ্য গোপন করেছে, যার উপর পরিহারকৃত মূসক ৫৩ লাখ ১০ হাজার ৭৪ টাকা।  এই ভ্যাট যথাসময়ে পরিশোধ না করায় ভ্যাট আইন অনুযায়ী মাসিক % হারে সুদ লাখ ৬৫ হাজার ৬২০ দশমিক ৯১ টাকা প্রযোজ্য।

প্রতিষ্ঠানটি সেবার কোড এস-০৯৯.১০ এর আওতায় অসঙ্গতিপূর্ণ নিবন্ধন নেয়ায় প্রতিষ্ঠার পর থেকে তারা পর্যন্ত বাড়ি ভাড়ার উপর কোন ভ্যাট পরিশোধ করেনি।

প্রতিষ্ঠান থেকে জব্দকৃত সি.. রিপোর্ট অনুযায়ী ২০১৪ হতে ২০১৮ পর্যন্ত সময়ে বাড়ি ভাড়া বাবদ কোটি ৫০ লাখ ৩৫ হাজার ৪৯৯ টাকা প্রদর্শন করা হয়েছে, যার উপর প্রযোজ্য ভ্যাট ২৯ লাখ ৬ হাজার ২৬ টাকা।

এছাড়া ২০১৯ সালের জানুয়ারি হতে চলতি বছরের আগস্ট পর্যন্ত সময়ের জব্দকৃত ভাড়ার চুক্তি মোতাবেক বাড়ি ভাড়া বাবদ কোটি ৮৪ লাখ টাকা প্রদর্শন করা হয়েছে, যার উপর প্রযোজ্য ভ্যাট ২৭ লাখ ৬০ হাজার টাকা। অর্থাৎ বাড়ি ভাড়া বাবদ মোট ৫৬ লাখ ৬৬ হাজার ২৬ টাকা ভ্যাট পরিহার করা হয়েছে।

এই বাড়ি ভাড়ার ভ্যাট যথাসময়ে পরিশোধ না করায় ভ্যাট আইন অনুযায়ী মাসিক % হারে সুদ বর্তায় ২৩ লাখ ৬১ হাজার ৯২০ টাকা প্রযোজ্য।

এছাড়া দাখিলপত্র পর্যালোচনায় দেখা যায়, প্রতিষ্ঠানটি লিমিটেড কোম্পানি হওয়া সত্ত্বেও পণ্য ক্রয়ের উপর কোন উৎসে মূসক পরিশোধ করেনি। জব্দকৃত সি.. রিপোর্ট অনুযায়ী ২০১৪ হতে ২০১৮ সাল পর্যন্ত উৎসে মূসক বাবদ কোটি ২৪ লাখ ৩৫ হাজার ৫৫৩ টাকা পরিহার করেছে।

এই উৎসে ভ্যাট যথাসময়ে পরিশোধ না করায় ভ্যাট আইন অনুযায়ী মাসিক % হারে সুদ ৭২ লাখ ১২ হাজার ৭১৯ টাকা প্রযোজ্য।

ফুডপান্ডা পণ্য বিক্রয় বাবদ ৫৩ লাখ ১০ হাজার ৭৪ টাকা, বাড়িভাড়া বাবদ ৫৬ লাখ ৬৬ হাজার ২৬ টাকা এবং উৎসে কর্তন বাবদ কোটি ২৪ লাখ ৩৫ হাজার ৫৫৩ টাকাসহ মোট কোটি ৩৪ লাখ ১১ হাজার ৬৫৩ টাকা ভ্যাট পরিহার করেছে এবং এই পরিহারকৃত ভ্যাট এর উপর সুদ বাবদ কোটি ৫ লাখ ৪০ হাজার ২৬০ টাকা প্রযোজ্য হবে। প্রতিষ্ঠানটি সর্বমোট কোটি ৪০ লাখ টাকার ভ্যাট ফাঁকির সাথে জড়িত।

ভুল সেবা কোড ব্যবহার, প্রকৃত বিক্রয় তথ্য গোপন এবং উৎসে ভ্যাট না দেয়ায় ভ্যাট আইন অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে আজ ভ্যাট গোয়েন্দা মামলা দায়ের করেছে। মামলাটি নিষ্পত্তির জন্য ঢাকা উত্তর ভ্যাট কমিশনারেটে প্রেরণ করা হবে।

এই বিভাগের আরো খবর

পাপুল দম্পতির সম্পদের হিসাব চেয়েছে দুদক

নিজস্ব প্রতিবেদক: মানবপাচারে জড়িত...

বিস্তারিত
দুদকের মামলায় খালাস পেলেন ইশরাক

নিজস্ব প্রতিবেদক: সম্পদের বিবরণী...

বিস্তারিত
কাজী আনিস দম্পতির সম্পদ জব্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক: যুবলীগের বহিস্কৃত...

বিস্তারিত
গোল্ডেন মনিরের বিরুদ্ধে ৩ মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক: অবৈধ অস্ত্র, মাদক ও...

বিস্তারিত
গাড়ি ব্যবসায়ী গোল্ডেন মনির আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক: অবৈধ সম্পদ...

বিস্তারিত
গ্যাটকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠন পিছিয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপি চেয়ারপারসন...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *