বিজিবি'র শতকোটি টাকার মানহানি মামলা: চার্জশিট রোববার

প্রকাশিত: ১০:৫৮, ২১ নভেম্বর ২০২০

আপডেট: ১১:২৫, ২১ নভেম্বর ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: এক এনজিও কর্মীর তোলা ধর্ষণের অভিযোগকে মিথ্যা দাবি করে তার বিরুদ্ধে বিজিবি'র চাঞ্চল্যকর ১০০ কোটি টাকার মানহানি মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে রোববার (২২ নভেম্বর)। টেকনাফ থানার ওসি (অপারেশনস) ইন্সপেক্টর শরিফুল কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই প্রতিবেদন দাখিল করবেন। আজ (শনিবার) বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, গত ০৮ অক্টোবর তারিখে টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২ বিজিবি) এর অধীনস্থ দমদমিয়া চেকপোস্টে ফারজানা আক্তার নামে একজন অটোরিকশা যাত্রীকে তল্লাশি করা হয়, যিনি ব্লাস্ট নামক একটি এনজিওর কর্মী। পরবর্তীতে তিনি বিজিবি সদস্যদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেন। এর প্রেক্ষিতে গত ১০ নভেম্বর কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এর আদালতে টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২ বিজিবি) কর্তৃক ফারজানা আক্তারের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করা হয়। 

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিজিবি কর্তৃপক্ষ আরো জানিয়েছেন-
 
১. টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২ বিজিবি) এর অধীনস্থ দমদমিয়া বিওপিতে কর্মরত জেসিও-৭৮৩৬ নায়েব সুবেদার মোহাম্মদ আলী মোল্লা এবং তার সঙ্গীয় একটি চৌকষ টহলদল গত ০৮ অক্টোবর ২০২০ তারিখে দমদমিয়া চেকপোষ্টে সরকারী নিয়ম মানিয়া তল্লাশী কার্যক্রমে নিয়োজিত ছিল। পরবর্তীতে ১০:৩০ ঘটিকায় লেদা হতে টেকনাফগামী একটি সিএনজি চেকপোষ্টের নিকট আসলে তল্লাশীর জন্য থামানো হয়। উল্লেখিত সিএনজিটি সহকারে আরোহিত সর্বমোট ০৫ জন যাত্রীকে তল্লাশী করার উদ্দেশ্যে বিজিবি টহলদল সিএনজি হতে নামার জন্য যাত্রীগণকে অনুরোধ করে। আরোহিত অন্যান্য যাত্রীগণ তল্লাশী কার্যক্রমে বিজিবিকে সহয়তা করার জন্য সিএনজি হতে নামলেও জনৈক ফারজানা আক্তার (২৬), পিতা-সেলিম শাহনেওয়াজ, বর্তমান ঠিকানা ঃ গ্রাম-নাটমুরাপাড়া, ডাকঘর-হ্নীলা, থানা-টেকনাফ, জেলা-কক্সবাজার সিএনজি হতে নামতে অপারগতা প্রকাশ করে এবং তল্লাশী কার্যক্রমে বিজিবিকে সহায়তা প্রদান না করে উল্টো বিজিবি টহলদলের উপর ক্ষিপ্ত মনোভাব প্রকাশ করতঃ তাকে তল্লাশী করার কারণ জিজ্ঞাসা করে। এহেন আচরণের দরুণ বিজিবির টহলদল উক্ত ব্যক্তিকে সম্ভাব্য ইয়াবা পাচারকারী হিসেবে সন্দেহ করে। সারাদেশে মাদকের ভয়াবহ বিস্তার রোধে উর্দ্ধতন সদর দপ্তরের নির্দেশনা পালনার্থে সন্দেহভাজন ইয়াবা পাচারকারী হিসেবে উক্ত চেকপোষ্টের মহিলা তল্লাশী কক্ষে কর্তব্যরত মহিলা সৈনিকগণ দ্বারা তাকে তল্লাশী করা হয়। তল্লাশী কার্যক্রম পরিচালনাকালীন সময়ে উক্ত যাত্রীর সাথে সরকারী নিয়ম বর্হিভূত কিংবা কোন ধরনের অপেশাদার আচরণ করা হয়নি। পরবর্তীতে উক্ত ব্যক্তির নিকট কোন প্রকার মাদকদ্রব্য/অবৈধ পণ্য না পাওয়ায় ১০:৩৬ ঘটিকায় তাকে সসম্মানে দমদমিয়া চেকপোষ্ট হতে ছেড়ে দেওয়া হয়। দমদমিয়া চেকপোষ্ট হতে যানবাহনে আরোহন পরবর্তীতে জনৈক ফারজানা আক্তার তার চাকুরীস্থলে যাতায়াতের জন্য গাড়ী বরাদ্দ করা হয়নি বিধায় অন্যান্য সাধারণ নাগরিকের ন্যায় বিজিবি চেকপোষ্টে তল্লাশীর সম্মুখীন হওয়ার অভিযোগ করে মোবাইল ফোনে তার কর্তৃপক্ষের সাথে অত্যন্ত উচ্চ এবং রাগতস্বরে ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ করে (উপস্থিত স্বাক্ষীগণের স্বাক্ষ্য অনুযায়ী)। পরবর্তী দিবসে অর্থাৎ ০৯ অক্টোবর ২০২০ তারিখ আনুমানিক ১১:০০ ঘটিকায় বিজিবি চেকপোষ্টে দায়িত্বরত প্রহরীগণ কর্তৃক তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে মর্মে মামলা রেকর্ডের জন্য টেকনাফ থানায় গমন করে। উল্লেখিত অভিযোগের স্বপক্ষে উক্ত নারী প্রয়োজনীয় প্রমাণাদি উপস্থাপন করতে সক্ষম না হওয়ায় টেকনাফ থানা কর্তৃক তার মামলা রেকর্ড করা হয়নি। পরবর্তীতে উক্ত ব্যক্তি একই দিবসে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে গমন করে নিজেকে একজন ধর্ষিতা হিসেবে দাবি করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন মর্মে জানা যায়।

২. জনৈক ফারজানা আক্তার চিকিৎসাধীন থাকাবস্থায় গত ১১ অক্টোবর ২০২০ তারিখ জাতীয় পত্রিকা “দৈনিক যুগান্তর”এর ১৬ পৃষ্ঠায় ৫ম কলামে “কক্সবাজারে চেকপোষ্টে ব্লাস্ট কর্মীকে ধর্ষণ”শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। উক্ত সংবাদটি বিজিবি’র মত স্বনামধন্য বাহিনীর বিরুদ্ধে জনমনে নেতিবাচক মনোভাব তৈরী করার পাশাপাশি বিজিবির শতবর্ষের অর্জিত সুনাম ও ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করে। বিগত ১৩ অক্টোবর ২০২০ তারিখ ‘দৈনিক যুগান্তর’পত্রিকাটি “কক্সবাজারে চেকপোষ্টে ব্লাস্ট কর্মীকে ধর্ষণ”শিরোনামে ভুল ও মিথ্যা সংবাদ প্রকাশের জন্য দুঃখ প্রকাশ করে। 

৩. উল্লেখিত নারী নিজের ব্যক্তিগত স্বার্থ হাসিলের জন্য ‘উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে’ এবং কর্মস্থলে যাতায়াতের সুবিধার জন্য গাড়ি ব্যবহারের সুযোগ গ্রহণের উদ্দেশ্যকে অধিক জোরালো করার নিমিত্তে সরকারী বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ ও অভিযোগ আনয়ন করতঃ জনসমক্ষে এবং মিডিয়ার সহানুভূতিকে চতুরতার মাধ্যমে নেতিবাচকভাবে ব্যবহার করে বিজিবির মতো পেশাদার ও স্বনামধন্য বাহিনীকে হেয় করার অপচেষ্টা করেছেন। উক্ত বিষয়টি ইতিমধ্যে টেকনাফ ব্যাটালিয়নের অভ্যন্তরীণ তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। 

৪. বিজিবি সদস্যদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মত মিথ্যা অপবাদ ও প্রোপাগান্ডা করা এবং তা জাতীয় দৈনিক পত্রিকা ও অনলাইন পোর্টালে প্রকাশ করার মাধ্যমে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর মত দেশের একটি স্বানামধন্য ও ঐতিহ্যবাহী আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ভাবমূর্তি ক্ষুন্নের অপূরণীয় ক্ষতির কারণে জনৈক ফারজানা আক্তার এর বিরুদ্ধে গত ১০ নভেম্বর ২০২০ তারিখ জেসিও-৭৮৩৬ নাঃ সুবেঃ মোহাম্মদ আলী মোল্লা বাদী হয়ে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, আদালত নং-০৪, সদর, কক্সবাজার এ দন্ডবিধি ১৮৬০ এর ৫০০ ধারা মোতাবেক একটি ফৌজদারী মামলা দায়ের করেন (সি আর মামলা নং-২৯৭/২০২০ (টেকনাফ) তারিখ ১০ নভেম্বর ২০২০)। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহ উক্ত মামলাটির প্রয়োজনীয় তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন (স্বাক্ষীদের জবানবন্দিসহ) ০৭ কার্যদিবসের মধ্যে আদালতে দাখিল করার জন্য ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, টেকনাফ মডেল থানা, টেকনাফকে ইতিমধ্যে নির্দেশনা প্রদান করেছেন। উল্লেখ্য, আগামী ২২ নভেম্বর রোববার  ২০২০ তারিখ বর্ণিত মামলার শুনানীর দিন ধার্য্য করা হয়েছে। 

৫. সরকারী কর্তব্য পালনকালীন সময়ে দায়িত্বরত সৈনিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগের প্রেক্ষিতে রুজুকৃত মামলাটি নিঃসন্দেহে একটি ন্যায়সঙ্গত মামলা। পাশাপাশি উক্ত মামলাটি সরকারী বাহিনীর ঐতিহ্য ও সুনাম রক্ষার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ বিধায় বর্ণিত মামলার শুনানী এবং পূর্ণ বিচারকার্য সম্পাদনে সংশ্লিষ্ট আদালত সকল কিছুর উর্দ্ধে থেকে দায়িত্ব পালন করবেন মর্মে আশাবাদী। 

এই বিভাগের আরো খবর

যশোরে ষাঁড়ের লড়াই

যশোর সংবাদদাতা: যশোরের সদর উপজেলার...

বিস্তারিত
গাজীপুরে ধর্ষণ মামলায় দুলাভাই আটক

গাজীপুর সংবাদদাতা: গাজীপুরের বাসন...

বিস্তারিত
দেশে ফিরল ৪ বাংলাদেশি তরুণী

যশোর সংবাদদাতা: ভারতে পাচার হওয়া ৪...

বিস্তারিত
কক্সবাজারে সাবেক ছাত্রলীগ নেতাকে হত্যা

কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজারের...

বিস্তারিত
সুন্দরবনে দু’দিনের রাস উৎসব শুরু

বাগেরহাট সংবাদদাতা: সুন্দরবনের...

বিস্তারিত
শিশু অপহরণ ও হত্যা; ৩ আসামির যাবজ্জীবন

বাগেরহাট সংবাদদাতা: বাগেরহাটের...

বিস্তারিত
ঝিনাইদহে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জন নিহত

ঝিনাইদহ সংবাদদাতা: ঝিনাইদহে...

বিস্তারিত
জেএমবি’র বোমা হামলার ১৫তম বার্ষিকী পালিত

গাজীপুর সংবাদদাতা: গাজীপুরে নিষিদ্ধ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *