সম্মিলিত উদ্যোগেই করোনা মোকাবেলা সম্ভব: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ০৯:০৭, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০

আপডেট: ১২:৩৮, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০

ডেস্ক প্রতিবেদন : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্বের প্রতিটি দেশের সম্মিলিত উদ্যোগেই অতিমারি করোনাভাইরাসের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব। তিনি বলেন, জাতিসংঘ, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা, উন্নত রাষ্ট্র আর প্রতিটি দেশের সরকারের উচিত করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে পারস্পরিক সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেয়া।

করোনা মোকাবেলায়, জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৩১তম বিশেষ অধিবেশনে দেয়া ভিডিও বার্তায় এসব কথা বলেন শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, কেবল একটি জায়গায় মোকাবেলা করে করোনা দূর করা সম্ভব নয়, বরং সব জায়গায় একইসাথে মোকাবেলার মাধ্যমেই এই অতিমারির হাত থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব।

এসময় করোনার দ্বিতীয় দফা প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় ৩ দফা প্রস্তাব তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ভিডিও বার্তার শুরুতেই এমন একটি অধিবেশনের জন্য জাতিসংঘকে ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্তমান বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে এমন একটি উদ্যোগ বহুল প্রয়োজনীয়। বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস স্বাস্থ্য ও অর্থনীতির যে ক্ষতি করছে তা থেকে উত্তরোনে এখন প্রয়োজন সম্মিলিত উদ্যোগ।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্বজুড়ে ১৪ লাখের বেশি মানুষ করোনায় মারা গেছে, প্রতিদিন আরো শত শত মানুষ মারা যাচ্ছে। এই অতিমারি অনেক মানুষকেই নতুন করে দরিদ্র করেছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অপুষ্টি, সামাজিক বৈষম্য যেমন বেড়েছে তেমনি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে শিক্ষাব্যবস্থা। অর্থনীতি, বাণিজ্য ও পর্যটনে ক্ষতির পাশাপাশি জনজীবনে বিরূপ প্রভাব ফেলেছে’।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াই এখনো শেষ হয়ে যায়নি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্বের অনেক দেশই এখন করোনার দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফা প্রাদুর্ভাব মোকাবেলা করছে। বাংলাদেশও করোনার দ্বারা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বাংলাদেশের অর্থনীতি এবং জীবনযাত্রার মানে যেমন করোনা বিরূপ প্রভাব ফেলেছে তেমনি বহু কষ্টে অর্জিত উন্নয়নও বাধাগ্রস্ত করেছে।

শেখ হাসিনা বলেন, করোনার ক্ষতি মোকাবেলায় তাঁর সরকার এরইমধ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। বাংলাদেশের ব্যবসা ও কর্মসংস্থান রক্ষা এবং দারিদ্র মোকাবেলায় সরকার ১ হাজার ৪শ’ কোটি ১৪ লাখ মার্কিন ডলারের প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে। যা আমাদের প্রবৃদ্ধির ৪ দশমিক ৩ শতাংশ।

প্রধানমন্ত্রী বলেন ‘করোনা অতিমারি আমাদের সুযোগ দিয়েছে বিপদ থেকে শিক্ষা নেয়ার। কিভাবে একত্রিত হয়ে বিপদ মোকাবেলা করে মানুষের জান-মালের নিরাপত্তা দেয়া যায়’। 

করোনার দ্বিতীয় ধাপ সামলাতে এখনই পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন জানিয়ে ৩ দফা প্রস্তাবও তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। সেগুলো হলো-

১. সমতার ভিত্তিতে টিকা প্রাপ্তি

২. করোনার টিকা শুধু নির্দিষ্ট কোন দেশের সম্পত্তি মনে না করে, বিশ্বের সমস্ত মানুষের জন্য তা উন্মুক্ত করে দেয়া।

৩. করোনার কারণে যেসব উন্নয়নশীল দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হয়েছে, তাদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়া।

এই বিভাগের আরো খবর

টাকা পাচারে পিকে হালদারের সহযোগী যারা-

নিজস্ব প্রতিবেদক: পিকে হালদারের সাথে...

বিস্তারিত
‘জিএসপি প্লাস’: ১০টি ক্ষেত্রে উন্নতির সুপারিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ইউরোপে শুল্কমুক্ত...

বিস্তারিত
কাল বেসরকারি ভাবে আসছে আরও ১৫ লাখ টিকা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভারত সরকারের উপহার...

বিস্তারিত
টিকা নিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে বিএনপি: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনার টিকা নিয়ে...

বিস্তারিত
বিএনপি লুটেরাদের দল: তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: তথ্যমন্ত্রী ও...

বিস্তারিত
নিবন্ধন ছাড়া কেউ করোনার টিকা পাবে না 

নিজস্ব প্রতিবেদক: নিবন্ধন ছাড়া কেউ...

বিস্তারিত
করোনায় অর্থনৈতিক ক্ষতি কম হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী শেখ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *