জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্মাণ কাজে দুর্নীতি

প্রকাশিত: ১০:০৯, ১৪ জানুয়ারি ২০২১

আপডেট: ০৫:২১, ১৪ জানুয়ারি ২০২১

কাজী ফরিদ: জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ২শ ৩০ কোটি টাকার নির্মাণ কাজ চলছে। এই নির্মাণ কাজ নিয়ে আছে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ। ওভার ডিজাইনের কারণে অতিরিক্ত ব্যয় হয়েছে। এছাড়া প্রয়োজন ছাড়াই ভবন নির্মাণ করে ৯০ কোটি টাকা অপচয়ের অভিযোগ উঠেছে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনিয়ম, দুর্নীতি ও অদক্ষতা নিয়ে পাঁচ পর্বের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের আজ চতুর্থ পর্ব।

মতিউর রহমান। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সদ্য চাকরিচ্যুত নির্বাহী প্রকৌশলী। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নির্মাণ কাজের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে ছিলেন তিনি। স¤প্রতি পলাতক ও প্রতারণার অভিযোগ এনে চাকরিচ্যুত করে কর্তৃপক্ষ। তবে, তিনি জানান নির্মান কাজে অনিয়ম সমর্থন না করায় চাকরিচ্যুত করা হয়েছে তাকে।

কমবেশি ১শ ৪০ কোটি টাকা ব্যয়ে ক্যাম্পাসে নির্মাণ করা হচ্ছে ডরমেটরি ভবন, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য দুটি আবাসিক ভবন, সিনেট ভবন ও আইসিটি ভবন। 

মতিউর রহমান এই নির্মাণ কাজের অসঙ্গতি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিলেন। প্রো-ভিসির কাছে ব্যয়বহুল ডিজাইন, ভেটিং অনুযায়ী প্ল্যান-ডিজাইন সংশোধন ও শোর পাইল না করতে চিঠি দিয়েছিলেন। ভবনের দীর্ঘস্থায়ীত্ব বাড়াতেও দিয়েছিলেন নানা পরামর্শ। তবে এসব পরামর্শ গ্রহণ করেনি কর্তৃপক্ষ। উল্টো তাকেই চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। 

ভেটিং-এর দায়িত্বে থাকা বুয়েটের শিক্ষক ডক্টর সফিউল বারী ওভার ডিজাইনের কথা স্বীকার করেন।

নির্মাণ কাজের ভেটিং ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি-আইইউটি ও বুয়েট থেকে করানোর কথা বললেও একটি অংশ আইইউটি ও একটি অংশ বেসরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে করা হয়েছে। 

এদিকে, আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের সাথে যৌথভাবে ভবন নির্মাণ করছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, যাতে খরচ ৯০ কোটি টাকা। এই নির্মাণ কাজেও আছে লুকোচুরি। আগারগাঁয় গেলে বাধাঁর সম্মুখিন হতে হয়। অন্য একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর এসব নির্মাণ কাজে সার্বক্ষণিক সদস্য থাকা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।

গাজীপুর ও আগাঁরগাওয়ে প্রায় ২শ ৩০ কোটি টাকার নির্মাণ কাজে পছন্দের পরামর্শক প্রতিষ্ঠান নিয়োগ দিতে অনিয়মের আশ্রয় নিয়েছে টেন্ডার মূল্যায়ন কমিটি। তিনটি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সর্বোচ্চ দরদাতা ডেভেলপমেন্ট ডিজাইন কনসালটেন্ট লিমিটেডকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। 

নির্মাণ কাজের দায়িত্বে থাকা মজিদ সন্স কন্সট্রাকশন পূর্ব থেকেই বিতর্কিত দুর্নীতির অভিযোগে।
 

এই বিভাগের আরো খবর

দখলমুক্ত হচ্ছে না রাজধানীর ফুটপাত

ফাহিম মোনায়েম: অনেকটা ঢাকঢোল পিটিয়ে...

বিস্তারিত
পিলখানা ট্রাজেডি দিবস আজ

আশিক মাহমুদ: বাংলাদেশের ইতিহাসের...

বিস্তারিত
করোনা টিকার কার্যকারিতা জানতে জরিপ

ইমদাদুল্লাহ বাবু: করোনা টিকার...

বিস্তারিত
নদ-নদী দখলমুক্ত করার অভিযানে ধীরগতি

পার্থ রহমান: রাজধানীকে ঘিরে থাকা চার...

বিস্তারিত
তুরাগের বুকে ইটভাটা

পার্থ রহমান: রাজধানীর একদিকে...

বিস্তারিত
অনুমোদন ছাড়াই কেরাণীগঞ্জে সারি সারি ভবন 

তারেক সিকদার: কর্তৃপক্ষের অনুমোদন...

বিস্তারিত
আদালতে বাড়ছে বাংলা ভাষার ব্যবহার

এজাজুল হক মুকুল: উচ্চ আদালতে ইংরেজি...

বিস্তারিত
খাসজমি উদ্ধারে কঠোর আইন হচ্ছে

শাহনাজ ইয়াসমিন: সারাদেশের বেদখল হওয়া...

বিস্তারিত
রাজধানীর পথ-খাবারে বিপজ্জনক ব্যাকটেরিয়া

শেখ হারুন: নিজের অজান্তেই খাবারের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *