চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন: সংঘর্ষে নিহত ২

প্রকাশিত: ১০:৪৬, ২৭ জানুয়ারি ২০২১

আপডেট: ০৭:১১, ২৭ জানুয়ারি ২০২১

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা: চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলাকালে বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে কাউন্সিলর প্রার্থীদের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। নগরীর পাহাড়তলীতে পৃথক ঘটনায় নিহত হয়েছে দুইজন। আজ (বুধবার) সকালে ভোটগ্রহণ শুরুর পর বেলা সাড়ে ১০টার দিকে, পাহাড়তলীতে ১২ নম্বর ওয়ার্ডের (সরাইপাড়া) আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থী সাবের আহম্মদের কর্মী নিজামউদ্দীন মুন্না একই ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী নুরুল আমিনের কর্মীর ছুরিকাঘাতে নিহত হয়েছেন। সম্পর্কে তারা আপন ভাই বলে জানা গেছে। 

একইসময় পাহাড়তলী ওয়ার্ডের ইউসেফ আমবাগান টেকনিক্যাল স্কুল ভোটকেন্দ্রের সামনে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত ওই যুবকের নাম আলাউদ্দিন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকালে ভোটগ্রহণ শুরুর পর পাহাড়তলী ওয়ার্ডের ওই ভোটকেন্দ্রে আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী ওয়াসিম উদ্দিন চৌধুরী এবং বিদ্রোহী প্রার্থী মাহামুদুর রহমানের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

এসময় গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন আলাউদ্দিন। তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সংঘর্ষে আরও ৪ জন আহত হয়েছেন। একটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া সংঘর্ষে লালখান বাজারে ১০ জন ও পাথরঘাটায় ৫ জন আহত হয়েছে। লালখান বাজার চানমারি রোডের শহীদ নগর সিটি করপোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে সকাল পৌনে ৯টা থেকে দুইপক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এসময় হকিস্টিক, লাঠি নিয়ে হামলা চালানো হয়। কাচের বোতল, ইটপাটকেল ছোঁড়া হয় এলোপাতাড়ি। বিজিবি-পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পুলিশ লাইন কেন্দ্রেও গোলোযোগের খবর পাওয়া গেছে। এখানে সংঘর্ষে আহত হয়েছেন কাউন্সিলর প্রার্থী আবুল হাসনাত বেলালের সমর্থক শহীদুল ইসলাম শহীদ।

এর আগে সকাল ৮টায় ৭৩৫টি কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। শীত উপেক্ষা করে সকাল থেকেই বিভিন্ন কেন্দ্রের সামনে লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করছেন ভোটাররা। বেলা বাড়ার সাথে সাথে বাড়ে ভোটার উপস্থিতি। নগরীর চেরাগী পাহাড় মোড়ে কদম মোবারক এম ওয়াই উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। আর বহদ্দারহাট এখলাছুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন আওয়ামী লীগের এম রেজাউল করিম চৌধুরী। 

নির্বাচন সুষ্ঠু হচ্ছে উল্লেখ করে জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী তিনি। নির্বাচনের ফলাফল যাই হোক মেনে নেয়ার কথাও জানান আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী। এদিকে, ভোটকেন্দ্রে এজেন্টদেরকে কাজ করতে না দেয়ার অভিযোগ করেছেন বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী ডাক্তার শাহাদাত হোসেন।

এই বিভাগের আরো খবর

সিইসি ও মাহবুব তালুকদারের বাকযুদ্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভোটার দিবসের...

বিস্তারিত
ভোটার দিবসের উদ্বোধন

নিজস্ব সংবাদদাতা: দেশে তৃতীয়বারের...

বিস্তারিত
জাতীয় ভোটার দিবস আজ

অনলাইন ডেস্ক: আজ দোসরা মার্চ...

বিস্তারিত
২৯টি পৌরসভায় বিজয়ী হলেন যারা

ডেস্ক প্রতিবেদন: শেষ ধাপের ২৯টি...

বিস্তারিত
কারো নির্বাচন প্রত্যাখ্যান ব্যক্তিগত বিষয়: ইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক: পঞ্চম ধাপের পৌরসভা...

বিস্তারিত
ইউপি নির্বাচনে অংশ নিবে না বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক: আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ...

বিস্তারিত
বিচ্ছিন্ন ঘটনায় ২৯ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শেষ

ডেস্ক প্রতিবেদন: দু’একটি বিচ্ছিন্ন...

বিস্তারিত
রাত পোহালেই ২৯ পৌরসভায় ভোট

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের ২০টি জেলার...

বিস্তারিত
মধ্যরাতে শেষ হচ্ছে পৌর নির্বাচনের প্রচারণা

ডেস্ক প্রতিবেদন: আর একদিন পরই ২০টি...

বিস্তারিত
ঢাকা আইনজীবী সমিতির ভোটগ্রহণ চলছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা আইনজীবী...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *