ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৭, ৪ কার্তিক ১৪২৪, ২৮ মহাররম ১৪৩৯
শিরোনামঃ
বিচার বিভাগ স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারছে না: খালেদা জিয়া তথ্য প্রযুক্তি খাতে দেশে নিরব বিপ্লব হচ্ছে: জয় রোহিঙ্গা সংকটের জন্য মিয়ানমার সেনাবাহিনীই দায়ী: যুক্তরাষ্ট্র সরকার বিচারকে কোনোভাবেই প্রভাবিত করছে না: সেতুমন্ত্রী সীমান্তে ফের বেড়েছে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ সীমান্ত থেকে কুতুপালং ক্যাম্পে আনা হলো ৩০ হাজার রোহিঙ্গা 'রাজধানীর পরিবেশ উন্নয়নে কিছু শিল্প বিসিক এলাকায় সরানো হবে' উড়িষ্যায় আতশবাজি কারখানায় বিস্ফোরণে নিহত ৮, আহত ২০ মুক্তিযোদ্ধা ফারুক হত্যা মামলা সংসদ সদস্য রানার জামিন স্থগিত নিখোঁজের ৫ দিন পর এনজিও কর্মী সাবিনার মরদেহ উদ্ধার বরিশালে ঐতিহ্যবাহী শ্মশান দীপালি উৎসব অনুষ্ঠিত জিম্মি রাজনৈতিক ও স্থানীয় পেশিশক্তির কাছে ঝুট বাণিজ্য ঘরে ঘরে বিস্তৃত ক্যাবল ব্যবসা আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কবলে ইন্টারনেট এখন বিলাস সামগ্রী নয় অতি প্রয়োজনীয় সেবাখাত লঘুচাপের প্রভাবে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি এশিয়া কাপ হকিতে আজ চীনের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ পটিয়ায় নির্মিত হয়েছে ‘বীরকন্যা প্রীতিলতা সাংস্কৃতিক ভবন’

দেশের সংস্কৃতিকে তুলে ধরে চলচ্চিত্র নির্মাণের আহবান প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত: ১০:৩৮ , ২৪ জুলাই ২০১৭ আপডেট: ১০:৩৮ , ২৪ জুলাই ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য আর সংস্কৃতিকে ধারণ করে চলচ্চিত্র নির্মাণের আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৫ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন। তিনি আরও বলেন, সিনেমা শিল্পের বিকাশে এরই মধ্যে ট্যাক্স হলিডে সুবিধা দেওয়া হয়েছে। সিনেপ্লেক্স  ও আধুনিক প্রেক্ষাগৃহ নির্মাণে আর্থিক সুবিধা প্রদানের ঘোষণাও দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৫ প্রদানে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এই বর্ণাঢ্য আয়োজন। সোমবার ২৫টি ক্যটাগরিতে ৩১ শিল্পী ও কলাকুশলীকে পুরস্কার প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় চলচ্চিত্র শিল্পে অসামান্য অবদানের জন্য গায়িকা ফেরদৌসি রহমান ও অভিনেত্রী শাবানাকে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয়।

গুণী শিল্পীদের হাতে পুরস্কার তুলে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সত্যিকারের শিল্পীদের যেন মূল্যায়ন হয় সেদিকে সবাইকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

তিনি বলেন, ‘‘যখন এই শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র বা শ্রেষ্ঠ পুরস্কার দেওয়া হয়, আমি আশা করবো,  এখানে কেউ কারো প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করবেন না। সত্যিকার শিল্পীর যেন মূল্যায়ন হয়। সত্যিকার কলা কৌশলের যেন মূল্যায়ন হয়। সেদিকে বিশেষ ভাবে দৃষ্টি দেবেন।’’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সকল ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু বিশ্বমানের চলচ্চিত্র নির্মাণে খুব একটা অগ্রগতি হয়নি। তাই এখাতের উন্নয়নে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের প্রশিক্ষণ এবং মানোন্নয়নে বহুমুখী উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘চলচ্চিত্রের মান উন্নয়নে চলচ্চিত্র নির্মাণ, চলচ্চিত্র বিষয়ে অধ্যয়ন, প্রশিক্ষণ এবং গবেষণা সহায়ক পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যেই এই পদক্ষেপ আমরা নিয়েছি।’

এসময় দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি ধারণ করে চলচ্চিত্র নির্মাণের আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘যে স্ক্রিপটা সেটা কতটা দক্ষতার সাথে প্রস্তুত করা হলো,যা একটা সিনেমা দেখার পর তার রেশটা নিয়ে যেন ঘরে ফেরা যায়।’

সবশেষে ছিলো চলচ্চিত্র শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

এই সম্পর্কিত আরো খবর

টিভি ক্যামেরায় কথা বলা নিয়ে

আদালত প্রাঙ্গনে খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের মধ্যে হাতাহাতি

  নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর বকশিবাজারে বিশেষ জজ আদালত প্রাঙ্গনে বিএনপি সমর্থক আইনজীবীদের মধ্যে হাতাহাতি মারামারি হয়েছে। দুর্নীতির...

'রাজধানীর পরিবেশ উন্নয়নে কিছু শিল্প বিসিক এলাকায় সরানো হবে'

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর পরিবেশ ও মান উন্নয়নে কেমিক্যাল, প্লাস্টিক, লাইট এবং মুদ্রণ শিল্পকে সরিয়ে বিসিক এলাকায় নিয়ে যাওয়া হবে বলে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is