রাষ্ট্রভাষা বাংলার জন্য সংগ্রাম চলবে: বঙ্গবন্ধু 

প্রকাশিত: ১০:৫১, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১

আপডেট: ১১:১৪, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১

রীতা নাহার: একাত্তরে অর্জিত স্বাধীনতার জন্য আন্দোলন-সংগ্রামের গোড়াপত্তন হয়েছিল বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনে। স্বাধীনতা সংগ্রাম ও সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সেই ভাষা আন্দোলনে ছিলেন একজন সক্রিয় অংশগ্রহণকারী তরুণ ছাত্র নেতা। এ বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী। তাই এবার ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিতে ভাষা আন্দোলনে বঙ্গবন্ধু মুজিবের ভূমিকা ও অংশগ্রহনের ঐতিহাসিক অধ্যায় নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদনের আজ দশম পর্ব।

বাংলাকে রাষ্ট্র ভাষা করার দাবির মুখে পাকিস্তানের গভর্নর জেনারেল মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ ঢাকা ছাড়ার পর, ফজলুল হক হলের সামনে এক ছাত্রসভায় পাকিস্তানী সরকার দলীয় নিখিল পূর্ব পাকিস্তান মুসলিম ছাত্রলীগের নেতারা দাবি করে, “জিন্নাহ যা বলবেন, তাই আমাদের মানতে হবে। তিনি যখন ঊর্দূকে রাষ্ট্রভাষা বলেছেন তখন ঊর্দুই হবে।” 

এর প্রতিবাদ করে পূর্ব পাকিস্তান মুসলিম ছাত্রলীগের তরুণ নেতা শেখ মুজিব বলেন, “কোন নেতা যদি অন্যায় কাজ করতে বলেন, তার প্রতিবাদ করা এবং তাকে বুঝিয়ে বলার অধিকার জনগণের আছে। বাংলা ভাষা শতকরা ছাপ্পান্নজন লোকের মাতৃভাষা, পাকিস্তান গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র, সংখ্যাগুরুদের দাবি মানতেই হবে। রাষ্ট্রভাষা বাংলা না হওয়া পর্যন্ত আমরা সংগ্রাম চালিয়ে যাবো। তাতে যাই হোক না কেন, আমরা প্রস্তুত আছি”।

সাধারণ ছাত্ররা শেখ মুজিবকেই সমর্থন করে ভাষার দাবি নিয়ে সভা ও শোভাযাত্রা চালিয়ে যেতে থাকে, এর পক্ষে সমর্তন ও জনমত দিন দিন বাড়তে থাকে। কয়েক মাসের মধ্যেই পূর্ণ জনমসর্থন হারায় উর্দুপন্থী নিখিল পূর্ব পাকিস্তান মুসলিম ছাত্রলীগ।
 

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *