ভিকারুননিসা স্কুলকে সতর্ক করল কমিশন

প্রকাশিত: ০৯:২৮, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

আপডেট: ০৯:২৮, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক: নির্দিষ্ট একটি প্রতিষ্ঠানকে স্কুলড্রেস তৈরির একচেটিয়া ব্যবসার সুযোগ করে দেওয়ায় রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুলকে সতর্ক করেছে বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন। পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের পোশাক বানানোর ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান মেসার্স চৌধুরী এন্টারপ্রাইজকে প্রায় ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আজ (বুধবার) প্রতিযোগিতা কমিশন থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অভিযুক্তরা প্রতিযোগিতা আইন-২০১২ এর ১৫ ধারার উপধারা লংঘন করেছে। সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান চৌধুরী এন্টারপ্রাইজ ২০১৮ থেকে ২০২০ তিন বছরে মোট প্রায় কোটি ২০ লাখ টাকার পোশাক সরবরাহ করেছে। গড় বার্ষিক টার্নওভারের শতাংশ জরিমানা করেছে কমিশন।

অন্যদিকে, ভিকারুননিসা স্কুলের যেহেতু কোনো ব্যবসায়ীক উদ্দেশ্য ছিল না তাই ভবিষ্যতে প্রতিষ্ঠানটিকে কাউকে একচ্ছত্রভাবে দীর্ঘমেয়াদে শিক্ষার্থীদের পোশাক সরবরাহের সুযোগ না দিতে সতর্ক করা হয়েছে।

প্রতিযোগিতামূলক বাজার তৈরির লক্ষ্যে ২০১৮ সালের ১২ ডিসেম্বরে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের বিরুদ্ধে স্বপ্রণোদিত এই মামলাটি করে প্রতিযোগিতা কমিশন। অভিযোগ ছিল, ২০০৩ সাল থেকে লালবাগের অস্তিত্বহীন প্রতিষ্ঠান মেসার্স চৌধুরী এন্টারপ্রাইজ একচেটিয়াভাবে শিক্ষার্থীদের পোশাক তৈরি করত। অন্য কোনো প্রতিষ্ঠান বা দরজি এই ব্যবসায় আসতে পারত না। বাধ্যতামূলকভাবে শিক্ষার্থীদের ওই প্রতিষ্ঠান থেকেই পোশাক কিনতে হতো।

ভিকারুননিসা স্কুলের উদ্দেশে কমিশন থেকে বেশকিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেগুলো হলো-

১. শিক্ষার্থীদের পোশাকের ধরন, রঙ, ডিজাইন, মনোগ্রাম অভিভাবকদের জানিয়ে তার নমুনা নির্বাচিত দর্জিকে সরবরাহ করতে হবে।

২. প্রত্যেক ক্যাম্পাসের জন্য তিনজন সরবরাহকারী থাকতে হবে।

৩. কমপক্ষে ২টি জাতীয় পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে সরবরাহকারী নির্ধারণ করতে হবে।

৪. নির্বাচিত দর্জির দোকানের পোশাকের মূল্য তালিকা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের দৃশ্যমান জায়গায় টানাতে হবে।

৫. প্রতিষ্ঠানের যাবতীয় পণ্য সেবা কেনায় প্রতিযোগিতা আইন ২০১২ মানতে হবে।

৬. আদেশের আলোকে কী ব্যবস্থা নেওয়া হলো, সেটি প্রতিবেদন আকারে ২৬ এপ্রিলের মধ্যে ভিকারুননিসা কর্তৃপক্ষকে প্রতিযোগিতা কমিশন বরাবর জমা দিতে বলা হয়েছে।

৭. এছাড়া চৌধুরি এন্টারপ্রাইজকে দেয়া নির্দেশনার মধ্যে বলা হয়েছে, আরোপিত জরিমানা মার্চ মাসের মধ্যে সোনালী ব্যাংক শেরাটন কর্পোরেট শাখায় পে-অর্ডারের মাধ্যমে প্রতিযোগিতা কমিশনের অনুকূলে জমা দিতে হবে।

উল্লেখ্য, বাজারে সুস্থ প্রতিযোগিতামূলক পরিবেশ তৈরিতে ২০১৬ সালে বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন গঠিত হয়। অর্থনীতিতে টেকসই উন্নয়ন আনাই এর লক্ষ্য। প্রতিযোগিতামূলক দামে জনসাধারণের পণ্য সেবা প্রাপ্তি নিশ্চিতকরণেও এই কমিশন কাজ করে।

এই বিভাগের আরো খবর

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনায় আক্রান্ত...

বিস্তারিত
হেফাজতের ঢাকা মহানগরীর সভাপতি গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর বারিধারা...

বিস্তারিত
রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি

নিজস্ব প্রতিবেদক: তাপদাহ থেকে মুক্তি...

বিস্তারিত
বিমানের ফ্লাইট বাতিল, যাত্রীদের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক : আটকেপড়া প্রবাসী...

বিস্তারিত
কাল থেকে ৫টি দেশে বিশেষ ফ্লাইট

নিজস্ব প্রতিবেদক: আটকেপড়া প্রবাসী...

বিস্তারিত
রোজার শুরুতে চড়া কাঁচাবাজার

নিজস্ব প্রতিবেদক: রোজার এই সময়ে...

বিস্তারিত
চিকিৎসা সরঞ্জাম জালিয়াতি, আটক ১০

নিজস্ব সংবাদদাতা: অনুমোদন না নিয়ে...

বিস্তারিত
ঢাকায় আনা হলো ফজলে হোসেন বাদশাকে

রাজশাহী সংবাদদাতা: করোনাভাইরাসে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *