ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ১ পৌষ ১৪২৪, ২৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯
শিরোনামঃ
শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আজ  রায়েরবাজার বধ্যভূমিতে সকল যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দাবি ওয়ান প্লানেট সম্মেলন শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী জলবায়ু খাতে ৭ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের পরিকল্পনা সরকারের সৌদি আরবে জিয়া পরিবারের বিপুল অর্থ, তদন্ত করবে দুদক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদ নির্বাচন দাবিতে সোচ্চার হোন থার্টিফার্স্ট নাইটে উন্মুক্ত স্থানে কোনো অনুষ্ঠান নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শিক্ষা অধিদপ্তর-বোর্ড ও বিজি প্রেস থেকে প্রশ্ন ফাঁস হয়: দুদক বিএনপি নির্বাচনে না আসলে গণতন্ত্র বাধাগ্রস্ত হবে না পল্লী বিদ্যুতে অতিরিক্ত ইলেকট্রিশিয়ান নিয়োগ দেওয়ায় মানববন্ধন রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা তুঙ্গে হাইকোর্টে লক্ষ্মীপুরের ইউএনওর ক্ষমা প্রার্থনা খাগড়াছড়িতে ৬ সশস্ত্র যুবক আটক চট্টগ্রামের সেবা সমূহ ডিজিটালাইজড হওয়ার তাগিদ দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে সারা দেশে বিএনপির বিক্ষোভ আকায়েদের বিরুদ্ধে মার্কিন পুলিশের তিন অভিযোগ আশুগঞ্জে আমন চাল সংগ্রহ অভিযান শুরু ভূমিমন্ত্রীর ছেলে তমালকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ গাইবান্ধায় যুবলীগ নেতার ও বরগুনায় জেলের মরদেহ উদ্ধার ঢামেক হাসপাতাল দিচ্ছে ডিজিটাল ডেথ সার্টিফিকেট

বাঙালি সংস্কৃতিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে চেয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু

প্রকাশিত: ০৯:১০ , ০৭ আগস্ট ২০১৭ আপডেট: ০৯:১০ , ০৭ আগস্ট ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলা ও বাঙালির সংস্কৃতিকে স্থায়ীভাবে প্রাতিষ্ঠানিক  রূপ দেওয়া ছিলো জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অন্যতম বড় প্রচেষ্টা। প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে ঘরে ঘরে নিজস্ব সংস্কৃতির চর্চা ও বিকাশের  টেকসই পরিবেশ গড়ে ওঠে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে শুধু সেই সম্ভাবনারই মৃত্যু ঘটেনি, বাঙালির চিরায়ত সংস্কৃতিকে কবর দেওয়ার অপচেষ্টা চলে।

যুদ্ধবিধ্বস্ত সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশ গড়ার সংগ্রাম। তার ভেতরেও দেশের মানুষ যেন কখনো নিজস্ব সংস্কৃতির শেকড় থেকে বিচ্ছিন্ন না হয়, সেজন্য শুরু থেকেই উদ্যোগী হন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এ বিষয়ে মুক্তিযোদ্ধা এবং সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব কামাল লোহানী বলেন, “বাংলার লোকজ সংস্কৃতিকে তুলে আনা এবং চর্চা করার জন্য বঙ্গবন্ধু ভীষণভাবে আগ্রহী ছিলেন।”

আরেক মুক্তিযোদ্ধা এবং সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব জিয়াউদ্দিন তারিক আলী বলেন, “বঙ্গবন্ধুর লোকজ সংস্কৃতির প্রতি টান আরও প্রকাশিত হয়েছিল তাঁর রবীন্দ্র চেতনার কারণে। বঙ্গ সংস্কৃতি প্রসার এবং সম্প্রসারের জন্য তিনি প্রথমেই বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী গঠন করেছিলেন। ”

শিল্প, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড সৃজনশীল মানুষের চিন্তা ও কাজের স্বাধীনতা একটি গুরুত্বপূর্ণ পূর্বশর্ত। বঙ্গবন্ধুর বিশালতা সেক্ষেত্রেও দেখেছেন প্রবীন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা। বঙ্গবন্ধুর নির্মম হত্যাকাণ্ড বাংলা ও বাঙালির  অসাম্প্রদায়িক, উদারনৈতিক ও সহনশীল সংস্কৃতির উপর ছিল এক পরিকল্পিত আক্রমণ।

এ বিষয়ে মুক্তিযোদ্ধা ভাস্কর ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী বলেন, “বঙ্গবন্ধু হত্যা হওয়ার সাথে সাথেই এদেশের সংস্কৃতি মন ভেঙে গেছে।”

“৭২ থেকে ৭৫ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের কোনো ধরনের মিডিয়াতে উর্দু শব্দ বা উর্দু গজল অথবা উর্দু কবিতা প্রচারিত হয়নি” বলেন  জিয়াউদ্দিন তারিক।

শুধু সংগীত বা সাহিত্য চর্চাই নয়, বাঙালির চিরায়ত জীবনাচরণের যে সংস্কৃতি-সেখানেও কুঠারাঘাত হানে বঙ্গবন্ধুকে হত্যাকারীদের গোষ্ঠী। বিশ্লেষকদের মতে, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করাটাই ছিলো বাঙালি সংস্কৃতি বহির্ভূত ও বিরোধী কাজ।

এই বিভাগের আরো খবর

হত্যায় জড়িতদের নির্মূলের দাবি

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আজ 

নিজস্ব প্রতিবেদক: আজ শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। নয় মাসের মুক্তিযুদ্ধের একেবারে শেষ মুহূর্তে, বিজয়ের সূর্য্য যখন উঁকি দিচ্ছিলো তখনই একাত্তরের...

বিএনপি নির্বাচনে না আসলে গণতন্ত্র বাধাগ্রস্ত হবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপি নির্বাচনে না আসলেও গণতন্ত্রের পথে কোনো বাধার সৃষ্টি হবে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক...

দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে সারা দেশে বিএনপির বিক্ষোভ

ডেস্ক প্রতিবেদন: গ্যাস ও বিদ্যুৎসহ দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে সারা দেশে বিএনপির জেলা শাখার বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার...

ক্ষমতা ধরে রাখতেই একতরফা নির্বাচনের ষড়যন্ত্র হচ্ছে: রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক: ক্ষমতা ধরে রাখতে আওয়ামী লীগ আবারও একতরফা নির্বাচনের ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। সম্প্রতি আওয়ামী লীগই...

লালমনিরহাটে দ্রব্য মূল্য কমানোর দাবিতে সিপিবি’র কর্মসূচি

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: বিদ্যুৎ, চাল, ডালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম কমানোর দাবিতে লালমনিরহাটে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is