বন্যা ও ভূমিধসে ভারত ও নেপালে ৫০ জনের মৃত্যু আপডেট: ১২:০৩, ১৩ আগস্ট ২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: টানা বর্ষণে সৃষ্ট আকস্মিক বন্যা ও ভূমিধসে ভারত ও নেপালে প্রায় অর্ধশত মানুষের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে কয়েকজন। গত কয়েকদিনের বৃষ্টিপাতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও উত্তর পূর্বাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। ভারী বৃষ্টিতে পানির নীচে তলিয়ে গেছে নেপালের কয়েকটি জেলা। দুর্গতদের উদ্ধারে কাজ করছে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

বিদেশি সংবাদ সংস্থাগুলো জানাচ্ছে, কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি জেলা প্লাবিত হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কুচবিহার, উত্তর দিনাজপুর, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি ও দার্জিলিং। এসব জেলার তিস্তা, মহানন্দা, ধরলাসহ প্রধান নদ-নদীগুলোর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যায় ডুবে গেছে বহু ঘরবাড়ি ও কয়েক লাখ হেক্টর কৃষিজমি। কোথাও কোথাও বন্ধ রয়েছে সড়ক ও রেল যোগাযোগ। এছাড়া, ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রায় একশোটি চা বাগান। বন্যায় সমতল ও পাহাড়ি এলাকায় কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে। এদিকে যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় রাজ্য সরকার প্রস্তুত আছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

প্রবল বর্ষণে ভারতের আসাম, ত্রিপুরা, মেঘালয় ও অরুণাচল প্রদেশের বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। বন্যায় নতুন করে প্লাবিত হয়েছে আসামের ১৯টি জেলা। এরই মধ্যে সেখানে কয়েকজন মারা গেছে।

এদিকে, ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে সৃষ্ট ভূমিধসে নেপালের কয়েকটি জেলায় অনেক মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। বাস্তুচ্যুত হয়ে পড়েছে কয়েক হাজার মানুষ। দেশটির অধিকাংশ এলাকা পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

বন্যাদুর্গতদের উদ্ধারে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর পাশপাশি কাজ করছে স্বেচ্ছাসেবক দল। এ অবস্থায় নেপালের প্রধানমন্ত্রী শের বাহাদুর দেউবা মন্ত্রিপরিষদের জরুরি বৈঠকে ত্রাণ ও উদ্ধার তৎপরতা বাড়াতে স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দেন। 
 

 

Publisher : .