ঝালকাঠির গাবখান সেতুর সড়কবাতি নষ্ট

প্রকাশিত: ০৮:৩৪, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

আপডেট: ০৯:২৯, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১


ঝালকাঠি সংবাদদাতা: রাত হলেই অন্ধকারে ছেয়ে যায় ঝালকাঠির গাবখান সেতু। প্রায় ৬ মাস ধরে এই সেতুর বাতিগুলো নষ্ট। ফলে রাতের বেলা প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। চুক্তির মেয়াদ শেষ হলেও এই সেতুতে টোল আদায় করছে ইজারাদার। কিন্তু নষ্ট বাতি ঠিক করছে না। 


গাবখান চ্যানেলের উপর নির্মাণ করা হয়েছে পঞ্চম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতু, যেটি গাবখান সেতু নামেও পরিচিত। বরিশাল-খুলনা মহসড়কের ঝালকাঠিতে নির্মিত এই সেতু দিয়ে প্রতিদিন হাজারো যানবাহন চলাচল করে। পাশাপাশি এই সেতু দেখতে আসেন অনেক দর্শনার্থী।


তবে গুরুত্বপূর্ণ এই সেতুর ৬২টি বাতির মধ্যে ৪০টিই গত প্রায় ৬ মাস ধরে নষ্ট। ফলে সন্ধ্যা হলেই অন্ধকার নেমে আসে সেতুতে। মাঝে মধ্যেই ঘটে দুর্ঘটনা। বসে মাদকসেবীদের আড্ডাও। এমন পরিস্থিতিতে বিপাকে পড়েছেন গাবখান সেতুতে চলাচলকারী যানবহন চালক ও দর্শনার্থীরা।


সড়ক বিভাগ জানায়, এই সেতুতে বাতি লাগানোর দায়িত্ব ইজারাদার প্রতিষ্ঠানের। ইসলাম এন্ড ব্রাদার্স নামের ওই প্রতিষ্ঠানের টোল আদায়ের চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়েছে গত ৩০শে জুন। এরপর আবেদনের প্রেক্ষিতে তিনদফায় মেয়াদ বাড়ানোর পর আবারও আদালতে মামলা করেছে প্রতিষ্ঠানটি। আদালত রায় না দেওয়ায় নতুন বাতি লাগায়নি প্রতিষ্ঠানটি। তবে এখনো যানবাহন থেকে ঠিকই টোল আদায় করছে তারা।


ইজারাদারকে বলে শিগগিরই সেতুতে নতুন বাতি লাগানোর ব্যবস্থা করার আশ্বাস দিয়েছেন ঝালকাঠি সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শেখ নাবিল হোসেন।
জেলার গুরুত্বপূর্ণ এই সেতুতে দ্রুত নতুন বাতি লাগানোর দাবি জানিয়েছেন চলাচলকারীরা।
 

MHR/PBC

এই বিভাগের আরো খবর

বাসের মধ্যেই ফুটফুটে শিশুর জন্ম

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা: ঢাকা থেকে...

বিস্তারিত
রাস্তা মেরামতের দাবিতে নাটোরে মানববন্ধন

নাটোর সংবাদদাতা: নাটোরের বড়াইগ্রামে...

বিস্তারিত
ঝিনাইদহে শিশুদের নিউমোনিয়ার প্রকোপ

ঝিনাইদহ সংবাদদাতা: ঝিনাইদহে বেড়েছে...

বিস্তারিত
বিএনপি নেতা হাফিজের জামিন

বরিশাল সংবাদদাতা: তথ্য ও প্রযুক্তি...

বিস্তারিত
পটুয়াখালীতে মুক্তিযুদ্ধ ভাস্কর্যের উদ্বোধন

পটুয়াখালী সংবাদদাত: পটুয়াখালী শহরের...

বিস্তারিত
টাঙ্গাইলে বাস খাদে পড়ে নিহত ১, আহত ৩০

টাঙ্গাইল সংবাদদাতা: টাঙ্গাইলের...

বিস্তারিত
৭ বছর আগে সেতু হলেও সড়ক হয়নি

শেরপুর  সংবাদদাতা: শেরপুরে দু’টি...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *