রক্তে হিমোগ্লোবিন বাড়ায় লাউ শাক

প্রকাশিত: ১০:০০, ০৯ নভেম্বর ২০২১

আপডেট: ১০:০০, ০৯ নভেম্বর ২০২১

অনলাইন ডেস্ক: লাউ শাক বাঙ্গালীর অন্যতম জনপ্রিয় শাক। সারা বছরই এই শাক পাওয়া যায়, তবে শীতের মৌসুমে এটি বেশি পাওয়া যায়। অন্যান্য সবুজ শাকের মত লাউ শাকও পুষ্টিগুণে ভরপুর। লাউশাক সিদ্ধ, ভাজি, ভর্তা, ঝোল করে রান্না করে খাওয়া যায়। এছাড়াও জুস, সুপ এবং সালাদ বানিয়ে খাওয়া যায়। তবে যেভাবেই খাওয়া হোক না কেন, স্বাদের পাশাপাশি এই শাকের রয়েছে নানা স্বাস্থ্য উপকারিতা।

এই শাকে রয়েছে ফলিক এসিড, আয়রন, ভিটামিন সি, পটাশিয়ামের মতো উপাদান। এতে রয়েছে প্রচুর ফাইবার। চলুন এই শাকের কিছু উপকারিতা জেনে নেই।

লাউ শাকে রয়েছে আয়রন যা রক্তের হিমোগ্লোবিনের মাত্রা ঠিক রাখতে সাহায্য করে। এটি লোহিত রক্ত কণিকার সংখ্যা বাড়ায়। এই শাকে রয়েছে উচ্চ মাত্রার ভিটামিন সি। বিভিন্ন সংক্রমণ ও ঠাণ্ডা প্রতিরোধে সাহায্য করে লাউ শাক। যাদের কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা রয়েছে তাদের জন্য উপকারী খাবার হলো লাউ শাক। পাইলস প্রতিরোধেও এটি বেশ সহায়ক।

লাউ শাকে রয়েছে বিটা-ক্যারোটিন, লুটেইন ও জিয়েজ্যান্থিন। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে বিটা ক্যারোটিন। এই শাকে থাকা লুটেইন ও জিয়েজ্যান্থিন চোখের রোগ প্রতিরোধ করে, যেমন-রাতকানা, ঝাপসা দেখা ও ছানি।

দেহের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে লাউ শাক। নিয়মিত লাউ শাক খেলে মস্তিষ্ক ঠাণ্ডা থাকে। ঘুমের সমস্যায় যারা ভুগছেন তারা লাউ শাক খেলে উপকার পাবেন।

লাউ শাকে রয়েছে ক্যালসিয়াম ও ম্যাগনেসিয়াম। এই উপাদানগুলো হাড় শক্ত ও মজবুত করে। তাই শক্ত ও মজবুত হাড় পেতে খাদ্য তালিকায় লাউ শাক রাখুন। দাঁত ও দাঁতের মাড়ির রোগের ঝুঁকিও কমায় লাউ শাক।

লাউ শাকে থাকা পাটসিয়াম শরীরের রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখে এবং আয়রন রক্ত তৈরিতে সাহায্য করে।

লাউ শাক ফ্যাট মুক্ত বলে শরীরের ওজন কমাতে সাহায্য করে। ফলিক এসিড সমৃদ্ধ লাউ শাক গর্ভবতী মায়েদের জন্য খুবই উপকারী।

MNU/MSI

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *

loading...
loading...