পটুয়াখালীতে সাবমেরিন ক্যাবল ল্যান্ডিং স্টেশন উদ্বোধন করছেন প্রধানমন্ত্রী আজ আপডেট: ১২:০২, ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭

ডেস্ক প্রতিবেদন: পটুয়াখালীতে নির্মিত দেশের দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল ল্যান্ডিং স্টেশনের উদ্বোধন হচ্ছে আজ। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আজ রোববার এর উদ্বোধন করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

একই সাথে জেলার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রী। পাশাপাশি ৪৫০ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন আশুগঞ্জ কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্টেরও উদ্বোধন করা হবে এই অনুষ্ঠানে।

প্রযুক্তিগত উন্নয়নের পথে বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ায় যোগ হচ্ছে আরো একটি অধ্যায়। পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় নির্মিত দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে নতুন করে ১,৩০০ গিগাবাইট ব্যান্ডউইথ পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এতে বাড়বে ইন্টারনেটের গতি ও সক্ষমতা। রোববার সকালে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এর উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সংশ্লিষ্টরা জানান, “এই ক্যাবলের মাধ্যেমে আমরা প্রচুর ব্যন্ডউইথের মালিক হচ্ছি। প্রধানমন্ত্রী কুয়াকাটায় দ্বিতীয় সাবমেরিন স্টেশনের উদ্বোধন করবেন-- এটি বাংলাদেশের মানুষের জন্য বড় পাওয়া।”

এ ছাড়া ভিডিও কনফারেন্সে, রাঙাবালী উপজেলা কমপ্লেক্স ও টিয়াখালী ব্রিজের উদ্বোধনও করবেন প্রধানমন্ত্রী। পাশাপাশি কলাপাড়া উপজেলা পরিষদের সম্প্রসারিত ভবনের ভিত্তিপ্রস্তরও স্থাপন করবেন তিনি। এই ভিডিও কনফারেন্স আয়োজনে এরই মধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে জেলা প্রশাসন।

একই অনুষ্ঠানে দেশের বৃহৎ বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশনের কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্ল্যান্ট ইউনিটেরও উদ্বোধন করা হবে। ২,৫৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৪৫০ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন এ ইউনিট থেকে প্রাথমিকভাবে জাতীয় গ্রিডে যোগ হবে ৩৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ।

আশুগঞ্জ ৪৫০ মেগাওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্টের প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী ক্ষিতিশ চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, “টেস্ট করে পাওয়া গেছে ২৮৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ। আর জাতীয় গ্রিডে যোগ হবে ৩৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ।”

এ নিয়ে আশুগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মোট উৎপাদন ক্ষমতা দাঁড়াবে ১,৮০০ মেগাওয়াটে। ভবিষ্যতে এ কেন্দ্রের অধীনে নতুন আরো ইউনিট তৈরির পরিকল্পনাও রয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।