ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৭, ৬ কার্তিক ১৪২৪, ৩০ মহাররম ১৪৩৯
শিরোনামঃ
ইসিকে দেয়া প্রস্তাব বাস্তবায়নে দলগুলোর ঐকমত্য জরুরি উজাড় হচ্ছে কক্সবাজার ও বান্দরবানের বনাঞ্চল পণ্য ও সেবা বাণিজ্যে আমদানি ব্যয় বাড়লেও বাড়েনি রপ্তানি আয় রিভিউ আবেদন তৈরি করছে ১১ আইন বিশেষজ্ঞের কমিটি বাড়ি থেকে নকলা উপজেলা চেয়ারম্যানের লাশ উদ্ধার ঢাবি'র ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তার ৩ হারিয়ে যাচ্ছে ঠাকুরগাঁওয়ের ঐতিহ্যবাহী ‘ধামের গান’ ২ লাখ ২৪ হাজার রোহিঙ্গার বায়োমেট্রিক নিবন্ধন সম্পন্ন নারায়ণগঞ্জে ডকইয়ার্ডে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ ৪ শ্রমিক চট্টগ্রামে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত দিনভর বৃষ্টিতে জনজীবন বিপর্যস্ত মেহেরপুরের ১৪৫ স্কুলের নলকূপে মাত্রাতিরিক্ত আর্সেনিক তরুণদের কাজে লাগাতে সৃজনশীল কর্মসূচি হাতে নিয়েছে যুবলীগ বগুড়ায় ছোট ভাইয়ের ছুরিকাঘাতে ভাই-ভাবি খুন জলাবদ্ধতামুক্ত চট্টগ্রাম নগরী তৈরিতে সবার সহযোগিতা চাই: নাছির এশিয়া কাপ হকিতে বিকেলে জাপানের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ সীতাকুন্ডে বাস-ট্রাক সংঘর্ষ, নিহত ২ আফগানিস্তানে ড্রোন হামলায় পাকিস্তানের জঙ্গি নেতা নিহত

অর্থ পাচারকারীদের কেউই ছাড় পাবে না: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ০৮:৩৬ , ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ আপডেট: ০৮:৩৬ , ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যারা জনগণের টাকা লুট করে বিদেশে পাচার করেছে, তাদের অবশ্যই বিচার করা হবে। আজ বুধবার জাতীয় সংসদে নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে এ কথা জানান তিনি। ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত দেশ গড়ে তুলতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে  শুরু হয় জাতীয় সংসদের অধিবেশন। দিনের কার্যসূচি অনুযায়ী প্রথমেই ছিল প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত ৩০ মিনিটের প্রশ্নোত্তর পর্ব।

সাংসদ রুস্তম আলী ফারাজীর লিখিত প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী জানান, স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করা ও কৃষি উন্নয়নের মাধ্যমে দারিদ্রমুক্ত দেশ গড়া সরকারের অন্যতম প্রতিশ্র“তি। তা ধীরে ধীরে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “অনেক মানুষ আগে দারিদ্র সীমার নিচে যেখানে বাস করতো, আজকে তারা দারিদ্র সীমা থেকে ধীরে ধীরে উছে আসছে। তারা দারিদ্র সীমা থেকে উঠে আসুক, এদেশের মানুষ উন্নত জীবন পাক সেটাইতো আমাদের লক্ষ্য। কাজেই সেই লক্ষ্য নিয়ে এবং গবেষণার মাধ্যমে মানুষের আরও উন্নতি হোক সেটাই আমরা চাচ্ছি।”

জিয়া পরিবারের বিদেশে অর্থ পাচারের বিষয়ে সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া ও তার ছেলেদের বিদেশে পাচার করা অর্থের তথ্য সরকারের কাছে রয়েছে। প্রমাণিত হলে তারা কেউই ছাড় পাবেনা।

তিনি বলেন, “আর্থ-সামাজিক অবনতি ঘটেছিলো। বিএনপি জামায়াতের আমলে উন্নতি হয়নি। যাই হোক আমরা জনগণের সম্পদ যারা লুটে নিয়েছে, নিশ্চয়ই তাদের রিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং এই টাকা তদন্ত করে যখনই আমরা সঠিক তথ্য পাবো  এবং কোথায় কীভাবে আছে, নিশ্চয়ই আমরা তা ফেরত আনার পদক্ষেপ নেবো।”

২০৩০ সালের মধ্যে দেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই কাজ বাস্তবায়ন হলে এক কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হবে।
 

এই সম্পর্কিত আরো খবর

নির্বাচন বিশ্লেষকদের অভিমত

ইসিকে দেয়া প্রস্তাব বাস্তবায়নে দলগুলোর ঐকমত্য জরুরি

নিজস্ব প্রতিবেদক: সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য কমিশনের সাথে সংলাপে রাজনৈতিক দলগুলোর পক্ষ থেকে যে সব প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে, তা বাস্তবায়নে তাদের...

আওয়ামী লীগের ১১ দফা সুষ্ঠু নির্বাচনের অন্তরায় : বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক: নির্বাচন কমিশনের সাথে সংলাপে আওয়ামী লীগের দেয়া ১১ দফা প্রস্তাব গণতন্ত্র ও সুষ্ঠু নির্বাচনের অন্তরায় বলে মন্তব্য করেছে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is