প্রধান বিচারপতির পর্যবেক্ষণ বাতিলে আইনি পদক্ষেপ নিতে সংসদে প্রস্তাব পাস আপডেট: ০১:০০, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: ষোড়শ সংশোধনী মামলার রায়ে সংসদ ও অনান্য বিষয়ে প্রধান বিচারপতির অপ্রাসঙ্গিক ও অপ্রয়োজনীয় মন্তব্য ও পর্যবেক্ষণ বাতিলে আইনি পদক্ষেপ নিতে সংসদে সর্বসম্মতভাবে প্রস্তাব পাস হয়েছে। সংসদে এ প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় প্রধান বিচারপতির কড়া সমালোচনা করেন সরকারি ও বিরোধীদলের সিনিয়র সদস্যরা। আলোচনায় অংশ নিয়ে সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বিচারবিভাগ ও নির্বাহী বিভাগ স্বাধীনভাবে কাজ করবে

জাতীয় সংসদ অধিবেশনে, কার্যপ্রনালী বিধির ১৪৭ বিধি অনুযায়ী জাসদের মাঈনুদ্দিন খান বাদল ষোড়শ সংশোধনীর রায় বাতিল এবং প্রধান বিচারপতির সংসদ সম্পর্কে ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে অপ্রাসঙ্গিক পর্যবেক্ষণ বাতিলে আইনি পদক্ষেপ নিতে প্রস্তাব উত্থাপন করেন।  তার বক্তব্য এর ওপর আলোচনায় অংশ নেন সরকারি ও বিরোধী দলের সিনিয়র সদস্যরা।

তারা বলেন, বিচারবিভাগে সংসদের হস্তক্ষেপ প্রমাণ করতে না পেরে অপ্রাসঙ্গিক কথা বলেছেন প্রধান বিচারপতি। পর্যবেক্ষণে দেওয়া তার অপ্রাসঙ্গিক ও আপত্তিকর মন্তব্যে বাতিল করতে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। এ রায়ের মধ্য দিয়ে সংবিধান লঙ্ঘন করেছেন প্রধান বিচারপতি বলেও মন্তব্য করেন তারা।

পরে, সংসদ নেতা শেখ হাসিনা তার বক্তব্যে বলেন, বিএনপি জামাত ও বাংলাদেশের স্বাধীনতায় যারা বিশ্বাস করেন না, তাদের সুরে কথা বলেছেন প্রধান বিচারপতি। তিনি তাঁর বক্তব্যে রাষ্ট্রপতিকেও অসম্মান করেছেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বাধীনতায় অবদানকেও প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন।

এ রায় কারো কাছেই গ্রহণযোগ্য নয় উল্লেখ করে সংসদ নেতা বলেন, রায়ে গণতন্ত্র ও সংসদকে প্রশ্নবিদ্ধ করা হয়েছে। তিনি বলেন, আপিল বিভাগ সংবিধান সংশোধন করতে পারেনা।

পরে প্রস্তাবটি কন্ঠ ভোটে সর্বসম্মতভাবে পাশ হয় ।