'গণমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব, দায় সাংবাদিকদেরই'

প্রকাশিত: ০৩-০৫-২০২৩ ১৪:২৪

আপডেট: ০৩-০৫-২০২৩ ১৫:৪২

বিউটি সমাদ্দার: দেশে গণমাধ্যমের উলে­খযোগ্য বিস্তার ঘটলেও ভয়হীন স্বাধীন সাংবাদিকতার পরিসর কমেছে বলে মনে করেন জাতীয় দৈনিকের অনেক সম্পাদক ও পেশাজীবী গণমাধ্যম ব্যক্তিত্বরা। গণমাধ্যমের স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠায় বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানিক নীতি, নৈতিকতা এবং দক্ষতার উপর জোর দেয়া প্রয়োজন বলেই মনে করেন গণমাধ্যম সংশ্লিষ্টরা। 

১৯৯১ সালে ইউনেস্কোর ২৬তম সাধারণ অধিবেশনের সুপারিশ অনুসারে ১৯৯৩ সালে জাতিসংঘের সাধারণ সভায় ৩ মে তারিখটিকে বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবসের স্বীকৃতি দেয়া হয়। এর পর থেকে বিশ্বের সাংবাদিকরা দিবসটি পালন করে আসছে। এবছর দিবসটির প্রতিপাদ্য ‘মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, সকল প্রকার মানবাধিকারের চালিকাশক্তি’। 

দেশে গণমাধ্যমের পথ কখনোই মসৃন ছিলো না। তবে অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে বিগত কয়েক বছরে দেশের গণমাধ্যম বেশি চাপের মুখে পড়েছে বলে বৈশাখী টেলিভিশনে দেয়া সাক্ষাতকারে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠিত দুই গণমাধ্যমের সম্পাদক। তাদের মতে কখনো সেই চাপ কর্পোরেট, কখনো প্রভাবশালী মহলের, আবার কখনো তা সরকারের বিভিন্ন আইনের মারপ্যাচে।

দৈনিক সমকাল সম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন ও আজকের পত্রিকার সম্পাদক গোলাম রহমান বলেন, মূল ধারার গণমাধ্যমের বাইরে সামাজিক গণমাধ্যমে যারা কথা বলেন তাদেরও পরোক্ষভাবে নিয়ন্ত্রণ করা চেষ্টা হচ্ছে। তবে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা রুদ্ধ হওয়ার দায় বেশি সাংবাদিকদের উপরই দেন এই দুই সম্পাদক। 

গণমাধ্যমের স্বাধীনতা জনগণের স্বাধীনতা উলে­খ করে তারা বলেন, গণমাধ্যম সম্পূর্ণ স্বাধীন না হওয়া দেশের উন্নয়নের জন্য বড় বাধা। 

 

BRS/shimul