কানাডাপ্রবাসী স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

প্রকাশিত: ০১-০৬-২০২৩ ১১:০৮

আপডেট: ০১-০৬-২০২৩ ২১:৫৪

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীতে কানাডাপ্রবাসী স্বামীর হাতে খুন হয়েছেন স্ত্রী। বিয়ের তিন মাসের মাথায় স¤প্রতি কানাডা থেকে দেশে ঘুরতে আসে এই দম্পতি। পুলিশ জানিয়েছে, গেল শুক্রবার রাতে কথা কাটাকাটির জেরে স্ত্রী আফরোজা বেগমকে বটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে স্বামী আশরাফুল ইসলাম। ঘটনার পাঁচ দিন পর বুধবার দক্ষিণখানে বাড়ির উঠানে পুঁতে রাখা ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তবে ঘটনার একদিন পরই কানাডায় পালিয়ে যান আশরাফুল। পুলিশের ধারণা কাবিনের টাকার জেরেই এই হত্যাকাণ্ড।

রাজধানীর দক্ষিণখানের এই বাড়িটিই আফরোজার শ্বশুর বাড়ি। দুইমাস হলো স্বামী আশরাফুলের সাথে কানাডা থেকে দেশে এসে শ্বশুর বাড়িতে ওঠেন তিনি। স্বামী-স্ত্রী দুজনেই কানাডার স্থায়ী বাসিন্দা। 

গেল শুক্রবার রাতে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ঘরের বটি দিয়ে তার মাথায় কোপ দেয় স্বামী আশরাফুল। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান আফরোজা। পরে বাড়ির উঠানে গর্ত করে পুঁতে রাখা হয় তার মরদেহ। ঘটনার পরপরই রোববার কানাডায় পাড়ি জমান স্বামী আশরাফুল ইসলাম।

শুক্রবার মেয়ে আফরোজার সাথে বাবা আতাউল­াহ মন্ডলের শেষ কথা হয়। শনিবার আসেন মেয়ের শ্বশুর বাড়িতে। মেয়েকে না পেয়ে দিশেহারা বাবা গত সোমবার অভিযোগ করেন দক্ষিণখান থানায়। এরপর পুলিশের তদন্তে বেরিয়ে আসে আফরোজার খুন হওয়ার বিষয়টি। পরে বুধবার রাতে শ্বশুরবাড়ির উঠান থেকে আফরোজার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করে সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিট। গ্রেপ্তার করা হয় আশরাফুলের পরিবারের চার সদস্যকে। পুলিশের ধারণা কাবিনের টাকা নিয়ে বিরোধের জেরে এই হত্যাকাণ্ড। 

নিহত প্রবাসী নারী আফরোজার বাড়ি নীলফামারীর ডোমার উপজেলায়। তার পরিবার এ ঘটনায় সুষ্ঠু বিচার চেয়েছে।

 

Rakib/shimul