চাঁদপুরের বালুর চরে সমুদ্র সৈকতের অনুভূতি

প্রকাশিত: ০৬-০৩-২০১৯ ১০:২৭

আপডেট: ২৫-০১-২০২২ ১০:০৩

চাঁদপুর প্রতিনিধি: ভ্রমণপিপাসুদের মনে মিনি কক্সবাজার হিসেবে স্থান করে নিয়েছে চাঁদপুরের বালুর চর। এখানে মিলছে সমুদ্র সৈকতের মতই অনুভূতি। তাই বিভিন্ন জেলা থেকে ছুটে আসছে পর্যটকরা। এ স্পটকে ঘিরে দেখা দিয়েছে পর্যটনের অপার সম্ভাবনা। পরিকল্পনা করা হচ্ছে, যা দ্রুত বাস্তাবায়ন করার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। চাঁদপুর শহর থেকে দশ মিনিটের নৌপথ। বালুর চরে পৌঁছাতে পৌঁঁছাতে দেখা যাবে, লঞ্চ, মালবোঝাই সাগরের জাহাজের ছুটে চলা আর ইলিশ ধরা জেলেদের নৌকা। শুধু বালুর এচরই নয়, ঠিক উত্তরদিকে আছে ল¹িমারা চর। এখানেও রয়েছে পর্যটনের অপার সম্ভাবনা। অনেক বছর আগেই বালুর চর জেগেছে। তবে গেলো বছর থেকে ভ্রমণপিপাসুদের মনে মিনি কক্সবাজার হিসেবে স্থান করে নিয়েছে। এখানে মিলছে সমুদ্র সৈকতের মতই অনুভূতি। তাই বিভিন্ন জেলা থেকে ছুটে আসছে পর্যটকরা। বিশ্রামাগার ও পর্যাপ্ত খাবারের দোকানসহ বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করে, এই বালুর চরকে পর্যটন স্পট হিসেবে গড়ে তোলার দাবি জানিয়েছেন ভ্রমণপিপাসুরা। শুধু এ স্পটই নয়, ইলিশের বাড়ি চাঁদপুরে পর্যটন শিল্প বিকাশের জন্য ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে, যা ধীরে ধীরে বাস্তবায়ন করা হবে বলে জানালেন চাঁদপুর সদরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা। চাঁদপুরের পর্যটন শিল্প সমৃদ্ধ করতে খুব দ্রুত বড় ধরনের বরাদ্দ আসবে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

/admiin