দুই অপহরণকারী আটক, ব্যবসায়ী উদ্ধার

প্রকাশিত: ০৪:১৭, ১৯ জানুয়ারি ২০২১

আপডেট: ০৬:১৭, ১৯ জানুয়ারি ২০২১

নিজস্ব সংবাদদাতা: রাজধানীর উত্তরা থেকে মিহির রায় নামে এক ব্যবসায়ীকে অপহরণের ঘটনায় দুই অপহরণকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় উদ্ধার করা হয়েছে অপহৃত ব্যবসায়ী মিহিরকে। 

আজ (মঙ্গলবার) সকালে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ-ডিএমপি’র মিডিয়া কর্মকর্তা এডিসি ইফতেখাইরুল ইসলাম গণম্যাধমকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, মিহির রায়ের উত্তরা ৯নং সেক্টরে ‘ফুড স্টোরি’ নামে একটি ফাস্ট ফুডের দোকান আছে। ১৩ জানুয়ারি সন্ধ্যা আনুমানিক ৬.৩০ টায় অজ্ঞাতনামা একজন লোক দোকানে খাওয়া শেষে ভিকটিমের সাথে আলোচনা করে যে, তার দোকানের খাবার ভালো লেগেছে। তার এক বড় ভাইয়ের প্রোগ্রামে ৮০ প্যাকেট খাবার অর্ডার দেবে বলে ভিকটিম মিহিরকে সঙ্গে করে নিয়ে যায়। পরবর্তী সময়ে ভিকটিমের স্ত্রী তার ব্যবহৃত নাম্বারে ফোন দিলে নাম্বার বন্ধ পায়।

১৪ জানুয়ারি ভিকটিমের নাম্বার হতে তার স্ত্রীর মোবাইলে ফোন আসে এবং কোন কথা না বলে ফোন কেটে দেয়। কিছুক্ষণ পর অন্য একটি নাম্বার থেকে ভিকটিমের স্ত্রীর নাম্বারে ফোন আসে এবং ভিকটিম মিহির বলে যে, এরা আমার হাত, পা ও চোখ বেঁধে রেখেছে। ২০ লাখ টাকা দিলে তারা আমাকে ছেড়ে দেবে। ভিকটিমের স্ত্রী বিভিন্ন সময়ে অপহরণকারীদের দেয়া নাম্বারে ২ লাখ ৯১ হাজার টাকা বিকাশ করে। অবশিষ্ট টাকা না দিলে তার স্বামী মিহিরকে ক্ষতির হুমকি প্রদান করে অপহরণকারীরা। এ ঘটনায় ১৬ জানুয়ারি, ২০২১ ভিকটিমের স্ত্রী বাদী হয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি মামলা রুজু করেন।

ডিবির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার বলেন, মামলার পর অপহৃত ব্যবসায়ী মিহির রায়কে উদ্ধারের জন্য রাজধানীতে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে উত্তরা জোনাল টিম। অভিযানকালে গোয়েন্দা টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, অপহরণ চক্রটি ভিকটিমকে দক্ষিণখানের চেয়ারম্যান পাড়ার হেজুর উদ্দিন রোডের একটি বাড়িতে আটকে রেখেছে। এমন সংবাদ পেয়ে ওই বাড়িতে অভিযান চালায় গোয়েন্দা পুলিশ। বাড়িটির ৩য় তলার একটি ফ্ল্যাট থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়। এসময় অপহরণকারী চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, গ্রেফতারকৃতরা একটি অপহরণকারী চক্র। তারা বিভিন্ন সময় অপহরণের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে। এছাড়াও অপহরণকারীরা অপহরণের পর ভিকটিমের অশ্লীল ছবি তুলে রাখে, যাতে ভিকটিম মুখ খুলতে না পারে। যদি এ বিষয়ে পুলিশ অথবা অন্য কারো কাছে অভিযোগ করে তাহলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিকটিমের অশ্লীল ছবি ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখায়।


 

এই বিভাগের আরো খবর

কাল প্রথমবার পালিত হবে পরিসংখ্যান দিবস

নিজস্ব সংবাদদাতা: প্রথমবারের মতো...

বিস্তারিত
আমদানির পরও চালের দাম ঊর্ধ্বমুখী

নিজস্ব প্রতিবেদক: সরকারের কোন...

বিস্তারিত
দখলমুক্ত হচ্ছে না রাজধানীর ফুটপাত

ফাহিম মোনায়েম: অনেকটা ঢাকঢোল পিটিয়ে...

বিস্তারিত
ভিকারুননিসা স্কুলকে সতর্ক করল কমিশন

নিজস্ব প্রতিবেদক: নির্দিষ্ট একটি...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *