ভাষা আন্দােলনে ছাত্রলীগকে সংগঠিত করেন শেখ মুজিব

প্রকাশিত: ১০:৪১, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২১

আপডেট: ১১:১৭, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২১

রীতা নাহার: একাত্তরে অর্জিত স্বাধীনতার জন্য আন্দোলন-সংগ্রামের গোড়াপত্তন হয়েছিল বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনে। স্বাধীনতা সংগ্রাম ও সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সেই ভাষা আন্দোলনে ছিলেন একজন সক্রিয় অংশগ্রহণকারী তরুণ ছাত্র নেতা। এ বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী। তাই এবার ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিতে ভাষা আন্দোলনে বঙ্গবন্ধু মুজিবের ভূমিকা ও অংশগ্রহনের ঐতিহাসিক অধ্যায় নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদনের আজ এগারোতম পর্ব। 

ঊনিশ’শ আটচলি­শের শেষ ভাগে তৎকালীন পাকিস্তান সরকারের বিরুদ্ধে কোন শক্তিশালী বিরোধী দল না থাকায় সরকার গণতন্ত্রের পথ ছেড়ে একনায়কতন্ত্রের পথে চলতে থাকে। সেসময় প্রধানমন্ত্রী ছিলেন লিয়াকত আলী খান। ভাষার দাবিতে কোন সমালোচনাই সহ্য করতে পারছিলেন না তিনি। 

এসময়, সরকার দলীয় নিখিল পাকিস্তান মুসলিম ছাত্রলীগকে প্রতিহত করতে পূর্ব পাকিস্তান মুসলিম ছাত্রলীগকে সংগঠিত করার দায়িত্ব নেন সংগঠনের তরুণ নেতা শেখ মুজিব।

১৯৪৯ সালের জানুয়ারিতে দেশের বেশ কিছু এলাকায় শিক্ষার্থীদের গ্রেফতার করা হয়। ভাষার দাবিতে আন্দোলন করায় সেসময় রাজশাহী সরকারি কলেজের একুশজন ছাত্রকে বহিস্কার করে জেলা ত্যাগ করার নির্দেশ দেয় সরকার। ফলে, ছাত্ররা শেখ মুজিবকে কনভেনার করে “জুলুম প্রতিরোধ দিবস” পালনের জন্য কমিটি করে। কমিটির পক্ষ থেকে ছাত্রবন্দীসহ অন্যান্য রাজবন্দীদের মুক্তির দাবি করা হয় এবং ছাত্রদের ওপর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা প্রত্যাহারের অনুরোধ জানানো হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আমতলায় “জুলুম প্রতিরোধ দিবস” এর কর্মসূচীতে মুসলিম লীগ পন্থী গুন্ডারা বাধা দিয়ে ছাত্রদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করলেও কর্মসূচী সফল করতে সক্ষম হয় শিক্ষার্থীরা। 
 

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *