১২ জেলায় বজ্রপাতে ২৪ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত: ০৮:১৮, ০৬ জুন ২০২১

আপডেট: ১০:৩১, ০৬ জুন ২০২১

ডেস্ক প্রতিবেদন: সিরাজগঞ্জ, চট্টগ্রাম, ফেনী, মানিকগঞ্জ, পটুয়াখালী, পাবনা, বরিশাল, শরীয়তপুর, মাদারীপুর, নাটোর, সাতক্ষীরা ও টাঙ্গাইলে বজ্রপাতে ২৪ জন নিহত হয়েছে। আজ (রোববার) সকাল থেকে রাতের মধ্যে বজ্রপাতে এই ২৪ জনের মৃত্যু হয়। তাদের মধ্যে সিরাজগঞ্জে পাঁচজন, চট্টগ্রামে চারজন, ফেনীতে দুইজন, পটুয়াখালীতে দুই জন, মানিকগঞ্জে দুইজন, সাতক্ষীরায় দুইজন, টাঙ্গাইলে দুইজন এবং মাদারীপুর , শরীয়তপুর, বরিশাল, পাবনা ও নাটোরে একজন করে মারা গেছেন।

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া, শাহজাদপুর, বেলকুচি ও সলঙ্গা উপজেলায় বজ্রপাতে স্কুল ছাত্রসহ পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা হলেন, উল্লাপাড়া উপজেলার আগদিঘল গ্রামের নবম শ্রেণির ছাত্র ফরিদুল ইসলাম, বেলকুচির চর সমেশপুর গ্রামের লাইলি বেগম, সলঙ্গার আঙ্গারু গ্রামের রফিকুল ইসলাম এবং শাহজাদপুর উপজেলার চর আঙ্গারু গ্রামের কৃষক জুয়েল রানা ও বাতিয়া গ্রামের কৃষক আলহাজ পণ্ডিত।

এর আগে সকালে চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে বজ্রপাতে দুই নারীর মৃত্যু হয়। এসময় আহত হয়েছেন আরও দুইজন। উপজেলার কাঞ্চননগর ইউনিয়নের ৮ নম্বর মানিকপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, যোগেন্দ্র শীলের স্ত্রী ভানুমতি শীল (৪০) ও বানেশ্বর দাশের স্ত্রী লাকি রানি দাশ (৩৮)।

ফটিকছড়ি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) এসএম জিয়াদ হোসেন জানান, জমিতে কাজ করার সময় বজ্রপাতে ওই দুই নারীর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আরও দুইজন আহত হয়েছেন। 

এদিকে চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে বজ্রপাতে আরো একজনের মৃত্যু হয়েছে। লেবুক্ষেতে কাজ করার সময় তার মৃত্যু হয়। 

একইদিন সকাল ১০টার দিকে মিরসরাইয়ের সাহেরখালী ইউনিয়নের ৯ নম্বর পূর্ব ডোমখালী ওয়ার্ড এলাকায় মাঠে কাজ করার সময় বজ্রপাতে সাজ্জাদ হোসেন (১৬) নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। তার বাবা মো. মোশারফ হোসেন আহত হয়েছেন। 

এদিকে, ফেনীর সোনাগাজীর বগাদানা ইউনিয়নের আলামপুর গ্রামে বজ্রপাতে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা হলেন, সাজেদা আক্তার (১২) ও আল আমীন (৬)। সাজেদা ওই গ্রামের সোলেমান মিয়ার মেয়ে ও আল আমীন বাহার উদ্দিনের ছেলে। তারা দুজনই স্থানীয় কাটাখিলা ছমদিয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ছিল।

বগাদানা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আখম ইসহাক খোকন জানান, বৃষ্টির সময় দুই শিশু বাড়ির এক ঘর থেকে অন্য ঘরে যাচ্ছিল। এসময় হঠাৎ বজ্রপাতে গুরুতর আহত হয়। পরে স্বজনরা তাদের উদ্ধার করে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

অন্যদিকে, পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে বজ্রপাতে আবদুল জলিল নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। দুপুরে উপজেলার মজিদবাড়িয়া ইউনিয়নের তারাবুনিয়া গ্রামে ঝড়বৃষ্টির সময় মাঠে কাজ করতে গিয়ে বজ্রপাতে তার মৃত্যু হয়। নিহত জলিল তারাবুনিয়া গ্রামের মৃত সেরজন আলী হাওলাদারের পুত্র। এছাড়া পটুয়াখালী  সদরে বজ্রপাতে আরো একজনের মৃত্যু হয়। 

এছাড়া, মাদারীপুরের শিবচরে বজ্রপাতে আয়শা বেগম (৪৮) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার চরজানাজাত ইউনিয়নের হাওলাদারকান্দি বালুরটেক এলাকায় এই বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে। নিহত গৃহবধূ আয়শা বেগম ওই এলাকার ছোরফান হাওলাদারের স্ত্রী। বিকেলে বাড়ির পাশের ক্ষেতে ঢেঁড়স তুলে বাড়ি ফেরার সময় বৃষ্টি শুরু হয়। তখন বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।  

পাবনার আটঘরিয়ায় বজ্রপাতে এক কলেজ ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বরিশাল ও শরীয়তপুরে বজ্রপাতে দুই জন মারা গেছেন। 
 

MNU/JP

এই বিভাগের আরো খবর

বাহারী ফুলে প্রকৃতি সাজিয়েছে বর্ষা

নাটোর সংবাদদাতা: ক্যালেন্ডারের...

বিস্তারিত
পাটের বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি 

ডেস্ক প্রতিবেদন: এবার দেশে পাটের...

বিস্তারিত
সমতলে চা চাষ, স্বচ্ছলতা এসেছে বহু পরিবারে

দিনাজপুর সংবাদদাতা: দিনে গৃহস্থালির...

বিস্তারিত
কুষ্টিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কুষ্টিয়া সংবাদদাতা: কুষ্টিয়ার...

বিস্তারিত
তুরাগ নদীতে মিললো দুই শিশুর মরদেহ 

গাজীপুর সংবাদদাতা: গাজীপুরের...

বিস্তারিত
নানা আয়োজনে শেখ কামালের জন্মদিন পালিত

ডেস্ক প্রতিবেদন: নানা আয়োজনে দেশজুড়ে...

বিস্তারিত
দেশে করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ ২৬৪ জনের মৃত্যু

নিজস্ব সংবাদদাতা: দেশে গত ২৪ ঘণ্টায়...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *