বিমানে পাইলট সংকট, ফ্লাইট সূচীতে বিপর্যয়

প্রকাশিত: ১৯-১১-২০২১ ১৪:২৯

আপডেট: ২৫-০১-২০২২ ০৯:৫৮

রীতা নাহার: পাইলট সংখ্যা কম থাকায় উড়োজাহাজ চালাতে সংকটে আছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। পাইলটদের প্রয়োজনীয় টেনিং না দিয়ে বসিয়ে রেখে, অনেককে বিনা বেতনে ছুটিতে পাঠিয়ে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টির অভিযোগ আছে বিমানের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে। এতে বিমানের প্রতিদিনের ফ্লাইট সূচীতে বিপর্যয় ঘটছে।

জাতীয় পতাকাবাহী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে থাকা বর্তমানে ২১টি উড়োজাহাজ চালানোর জন্য অনুমোদিত পাইলট সংখ্যা ১৭৫ জন। বিমানে আছে ১৪৬ পাইলট। এই ঘাটতি কমাতে ৩০জন ক্যাডেট পাইলট নিয়োগ দেয়া হয়েছে এক বছর আগে। কিন্তু এদের ট্রেনিং দিয়ে কাজে যুক্ত করা হয়নি। অভিজ্ঞদের মধ্যে ২৬ জনের ভিন্ন ভিন্ন উড়োজাহাজের জন্য দায়িত্ব দিলেও তাদের ট্রেনিংও অসম্পূর্ন রাখে বিমান। এরা বেশিরভাগ ড্রিমলাইনার ও বোয়িং সেভেন থ্রি সেভেনর পাইলট। অভিজ্ঞ আরো ১৫জন পাইলটকে বিনা বেতনের ছুটিতে রেখেছে বিমান। এখন দায়িত্ব পালন করছেন মাত্র ১০৫জন।

পাইলট স্বল্পতার কারণে প্রতিদিনই বিমানের ফ্লাইট সূচিতে বিপর্যয় ঘটছে। ।

করোনাকালে কর্মীদের বেতন কেটে রাখার অংশ হিসেবে পাইলটরা বেতনের টাকার ৭২শতাংশই পেতেন না। গত জুন থেকে সেটা ২২শতাংশে আনা হয়। পাইলট ঘাটতিতে একদিকে, নিয়মের বাইরে অতিরিক্ত শ্রম আবার বেতনের টাকা এখনও পুরোটা পাচ্ছেনা। সব মিলে মানসিক ও আর্থিক চাপে বিপর্যস্ত তারা। অথচ মানসিক চাপমুক্ত থাকা ফ্লাইট পরিচালনার অন্যতম শর্ত।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, পাইলট সংকট তৈরির কারণ তদন্ত করা হচ্ছে ।

ফ্লাইট পরিচালনা স্বাভাবিক রাখতে পাইলটদের সহযোগিতাও চান প্রতিমন্ত্রী।

/admiin