বীরের কণ্ঠে বীরগাঁথা’ সংরক্ষণের কাজ শুরু শিগগিরই

প্রকাশিত: ০১:১৬, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

আপডেট: ০১:১৬, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

যশোর সংবাদদাতা: আগামী দুই মাসের মধ্যে ‘বীরের কণ্ঠে বীরগাঁথা’ সংরক্ষণের কাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন মুুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজ্জাম্মেল হক। সোমবার (৬ই ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় যশোর জেলা পরিষদ মিলনায়তনে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে ‘বিজয়েরর পথে পথে’ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা জানান। 

তিনি বলেন, ‘বীর মুক্তিযোদ্ধারা কোথায় কীভাবে যুদ্ধে অংশ নিয়েছেন তা সংরক্ষণ করতে আগামী দুই মাসের মধ্যে কাজ শুরু হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘তালিকাভুক্তদের মধ্যে ১৫ শতাংশ বীর মুক্তিযোদ্ধাকে আগামী এক বছরের মধ্যে একটি করে ঘর উপহার দেয়া হবে। এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যে কাজ শুরু হয়েছে। এছাড়া যুদ্ধক্ষেত্র ও বধ্যভূমিও সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।’ 

মন্ত্রী জানান, ‘বীর মুক্তিযোদ্ধারা যাতে অবজ্ঞার শিকার না হন সেজন্য ৮ স্তরের নিরাপত্তা সংবলিত স্মার্ট পরিচয়পত্র দেয়া হবে। যাতে সেটার জাল কপি তৈরি না করা যায়।’ 

যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলনের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী স্বপন কুমার ভট্টাচার্য, জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান, পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদারসহ আরও অনেকে। 
 

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *

loading...
loading...