অহেতুক প্রকল্প তৈরি না করতে ডিসিদের প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

প্রকাশিত: ১৮-০১-২০২২ ১১:৪৬

আপডেট: ২৫-০১-২০২২ ১১:০৪

নিজস্ব প্রতিবেদক: সরকারি সেবা নিতে এসে কোনো মানুষ যেন হয়রানির শিকার না হয়, তা নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ মঙ্গলবার (১৮ই জানুয়ারি) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী।

গ্রামের সার্বিক উন্নয়নকেও গুরুত্ব দিতে জেলা প্রশাসকদের প্রতি নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। জনপ্রতিনিধিদের সাথে সামঞ্জস্য রেখে কাজ করতে বলেন তিনি। ডিসিদের উদ্দেশ্যে শেখ হাসিনা বলেন, মানুষ যেন সরকারি সেবা পায় সে বিষয়ে আপনাদের আরো সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে হবে। সব ধরনের ভয়-ভীতির ঊর্ধ্বে থেকে মাঠ পর্যায়ে প্রশাসনের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) আহ্বানও জানান সরকার প্রধান।

দেশে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমিত হচ্ছে উল্লেখ করে এ বিষয়ে আগের মতো সজাগ ও সচেতন থেকে ডিসিদের কাজ করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, টানা তেরো বছর ক্ষমতায় থাকায় সরকারের দেয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন হয়েছে। কিন্ত আরো বহুদূর যেতে হবে, সে লক্ষ্যে সকলকে সক্রিয়ভাবে কাজ করার কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। জনগণের স্বার্থকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব প্রদানসহ জেলাপ্রশাসকদের ২৪ দফা নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। জনপ্রতিনিধিদের সাথে সমন্বয় করে উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে জেলাপ্রশাসকদের কাজ করার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

করোনার নতুন ধরন সংক্রমন নিয়ন্ত্রণে সরকারের নির্দেশনা মাঠ পর্যায়ে কার্যকর করতে জেলা প্রশাসকদের তদারকি বাড়ানো কথাও বলেন প্রধানমন্ত্রী। গ্রামীণ জনগনের দারিদ্র দূরীকরণ এবং তাদের স্বাবলম্বী করে গড়ে তোলার যে পদক্ষেপ সরকার নিয়েছে তার যথাযথ বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

ডিসি সম্মেলনে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার। পরে মাঠ পর্যায়ে প্রশাসনের কার্যক্রমের ওপর একটি ভিডিও ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করা হয়। এরপর প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণ দেন।

এবার ডিসি সম্মেলনের ভেন্যু রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তন। মহামারির কারণে দুই বছর পর এই সম্মেলন হচ্ছে। সম্মেলন শেষ হবে ২০ জানুয়ারি।

/admiin