সর্বোচ্চ দামে বিক্রি হচ্ছে কাটারীভোগ ধান

প্রকাশিত: ১৯-০১-২০২২ ০৯:২১

আপডেট: ২৫-০১-২০২২ ০৯:৫৮

দিনাজপুর সংবাদদাতা: দিনাজপুরের ঐতিহ্যবাহী কাটারীভোগ ধান উৎপাদন করে কৃষকেরা আগে লাভের মুখ না দেখলেও এবারে বদলে গেছে সেই চিত্র। বিক্রি হচ্ছে স্মরণকালের সর্বোচ্চ দামে। অর্থনীতিবিদ ও ব্যবসায়িরা বলছেন, সারাদেশে কদর থাকা সত্বেও দাম কম পাওয়ায় কৃষকরা কাটারীভোগ ধানের আবাদ কমিয়ে দিয়েছিলো। ফলে চাহিদার তুলনায় সরবরাহ কমায় বেড়েছে দাম। তবে এবারে ভালো দাম পাওয়ায় আগামীতে আবাদ বাড়বে বলে জানালেন কৃষক ও কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা।

ধানের জেলা দিনাজপুরের ঐতিহ্যবাহী কাটারী ভোগ চালের সুখ্যাতি দেশ জুড়েই। কিন্তু খ্যাতি ও চাহিদা থাকলেও এই ধান আবাদ করে কৃষকদের গুনতে হয়েছে লোকসান। অন্যান্য ধানের তুলনায় ফলন কম হওয়ার পাশাপাশি ভালো দাম না পাওয়ায় কাটারী ভোগ ধানের আবাদ কমিয়ে দিয়েছেন কৃষকরা।

কিন্তু বাজারে এবার স্মরণকালের সর্বোচ্চ দামে বিক্রি হচ্ছে কাটারী ভোগ ধান। গতবছর ৭৫ কেজির বস্তা সর্বোচ্চ ৩২শ থেকে ৩৩শ টাকায় বিক্রি হলেও এবার দাম উঠেছে ৫ হাজার টাকায়। কৃষকরা জানান, এমন দাম তারা কখনই পাননি। তাই আগামীতে বেশী করে কাটারী ভোগ ধানের আবাদ করবেন বলে জানালেন তারা।

ধান ব্যবসায়ীরা জানালেন, চাহিদার তুলনায় বাজারে সরবরাহ কমে যাওয়ার কারনেই বেড়েছে কাটারী ভোগ ধানের দাম।

বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সহ-সম্পাদক হাবিবুল ইসলাম বলছেন, আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কারণে কৃষকরা কাটারী ভোগ ধানের আবাদ কমিয়ে দিয়েছেন। আগের তুলনায় এই ধানের উৎপাদন চার ভাগের একভাগে নেমে এসেছে।

কাটারী ভোগ ধানের আবাদ কমে আসার কথা স্বীকার করে দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক মাহবুবুর রশিদ জানালেন, এর আবাদ বাড়াতে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এতে ফলন বাড়বে, লাভবান হবেন কৃষকরা।

দিনাজপুর জেলায় এবার ২ লাখ ৬০ হাজার ৮২৫ হেক্টর জমিতে আমন ধানের আবাদ করা হয়। এর মধ্যে সুগন্ধিযুক্ত ধানের আবাদ হয়েছে ৮৩ হাজার ৮৫১ হেক্টর জমিতে। আর, কাটারী ভোগ ধানের আবাদ করা হয়েছে মাত্র ১ হাজার ৩৭৬ হেক্টর জমিতে।

/admiin