সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে নেই সতর্কতা

প্রকাশিত: ২০-০১-২০২২ ০৮:৪৩

আপডেট: ২৫-০১-২০২২ ০৯:৫৮

দিনাজপুর সংবাদদাতা: প্রতিবেশী দেশ ভারতে করোনার ওমিক্রন ধরনের সংক্রমণ ব্যাপক ছড়িয়ে পড়লেও যথেষ্ট সতর্কতা নেই এদেশের স্থলবন্দর বাংলাবান্ধায়। ফলে পঞ্চগড়ের তেতুলিয়ায় অবস্থিত চতুর্দেশীয় এই স্থলবন্দরের মাধ্যমে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা বাড়ছে। বন্দর সংশ্লিষ্টরা সর্তকতামূলক পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানালেও বাস্তব চিত্র ভিন্ন। ভারত, নেপাল ও ভুটানের ট্রাক চালক এবং তাদের সহযোগীরা স্বাস্থ্যবিধি না মেনে ঘোরাফেরা করছেন বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের সবখানে।

বাংলাদেশের একমাত্র চতুর্দেশীয় স্থলবন্দর পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার বাংলাবান্ধা। এই স্থলবন্দর দিয়ে ভারত, নেপাল ও ভুটানের সাথে বাংলাদেশের আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম ও যাত্রী পারাপার চলে। ঐ তিন দেশ থেকে প্রতিদিন সড়ক পথে বাংলাদেশে প্রবেশ করে পণ্যবাহী শতাধিক ট্রাক।

সম্প্রতি ভারতের পশ্চিমবঙ্গসহ বেশ কয়েকটি রাজ্যে করোনার নতুন ধরন ওমিক্রণ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়লেও বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে নেই সতর্কতামূলক পদক্ষেপ। ভারতসহ অন্য দুই দেশ থেকে আসা ট্রাকের চালক ও সহযোগীরা বাংলাদেশে প্রবেশ করছে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ছাড়াই। চলাফেরাও করছেন অবাধে।

ভারতের ট্রাক ড্রাইভাররা বলছেন, করোনা মোকাবেলায় তাদের দেশে কড়াকড়ি থাকলেও বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে তা নেই।

যদিও বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর পোর্ট ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ বলছেন, সংক্রমণ ঠেকাতে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে সবধরণের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

তেঁতুলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহাগ চন্দ্র সাহা জানালেন, বিদেশ থেকে আসা ট্রাক ড্রাইভার ও তাদের সহযোগীদের জন্য আলাদা সেড নির্মাণ এবং ওয়াশ ব্লকের ব্যবস্থা করা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি ঠিকমতো মানা হচ্ছে কি না সে বিষয়টিও নজরদারি করা হবে।

তিনি জানালেন, করোনা অতিমারির মাঝেও বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের কার্যক্রম যাতে সুষ্ঠুভাবে পরিচালিত হয়, সেজন্য বন্দর ব্যবস্থাপনা ও বৈদেশিক বাণিজ্যের সাথে জড়িতদরে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বলা হয়েছে।

/admiin