আরসা নেতার ভাই শাহ আলী পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে

প্রকাশিত: ২০-০১-২০২২ ১৯:৪৪

আপডেট: ২৫-০১-২০২২ ০৯:৫৮

কক্সবাজার সংবাদদাতা: কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে গ্রেফতারকৃত রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) প্রধানের ভাই শাহ আলীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ছয়দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (২০শে জানুয়ারি) দুপুরে কক্সবাজারের জৈষ্ঠ্য বিচারক শ্রীজ্ঞান তঞ্চঙ্গার আদালত এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন। কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক চন্দন কুমার দাশ জানান, পুলিশের পক্ষে থেকে তিনটি মামলায় আরসা প্রধানের ভাই শাহ আলীর সাতদিন করে মোট ২১ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছিল। পরে আদালত প্রতিটি মামলায় ২ দিন করে মোট ৬ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

শাহ আলী (৫৫) মিয়ানমারের নিষিদ্ধ ঘোষিত সশস্ত্র সংগঠন ‘আরসা প্রধান আতাউল্লাহ ওরফে আবু আম্মার জুনুনীর ভাই। তিনি চট্টগ্রাম শহরের কোতোয়ালি থানার দেওয়ান বাজার এলাকার জয়নব কলোনির ঠিকানায় ‘বাংলাদেশি জাতীয় পরিচয়পত্র সংগ্রহ করেছেন, যা পুলিশ মামলার এজাহারে উল্লেখ করেছে।

গত ১৬ই জানুয়ারি ভোর রাতে কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং ৬ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নৌকার মাঠ-সংলগ্ন এলাকা থেকে অস্ত্র ও মাদকসহ শাহ আলীকে গ্রেফতার করে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)। এসময় ঘটনাস্থল থেকে এপিবিএন সদস্যরা চোখ বাঁধা অবস্থায় অপহৃত এক যুবককে উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় ওইদিন রাতে উখিয়া থানায় পুলিশ বাদী হয়ে ২টি ও অপহৃত যুবক বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। আসামি করা হয় শাহ আলী ও মোহাম্মদ জোবাইর সহ অজ্ঞাতনামা আরও তিনজনকে। আর মামলা তিনটি তদন্তের জন্য দায়িত্ব পান উখিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. নুরে আলম।

এপিবিএন জানায়, গোয়েন্দা তথ্য ছিল যে, ওই এলাকায় কিছু দুষ্কৃতকারী অবস্থান নিয়েছে এবং তারা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বড় ধরনের অঘটন ঘটাতে পারে। পরে ড্রোন দিয়ে অভিযান পরিচালনা করে তার অবস্থান শনাক্ত করার পর শাহ আলীকে আটক করা হয়। এ সময় সাদিকুল নামে এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করা হয়। তিনি জানান, তাকে সেখানে আটকে রেখে নির্যাতন করা হয় এবং টাকা দাবি করা হয়।

/admiin