কুড়িগ্রামে ৮ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

প্রকাশিত: ০৯-০৫-২০২২ ২০:৪৪

আপডেট: ০৯-০৫-২০২২ ২০:৪৪

কুড়িগ্রাম সংবাদদাতা: কুড়িগ্রামের চিলমারীতে হত্যা মামলায় চারভাই সহ আটজনের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে জেলা জজ আদালত। পাশাপাশি ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ডও দেয়া হয়েছে। আজ সোমবার (৯ই মে) দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ মো. আব্দুল মান্নান এই রায় প্রদান করেন। হত্যাকাণ্ডের দীর্ঘ ১৮ বছর পর এই রায় দেয়া হলো। পরে আসামীদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

মামলার এজাহারসূত্রে জানা যায়, ২০০৩ সালে গম ক্ষেতে পানি দেয়াকে কেন্দ্র করে মোছলেম উদ্দিনের সাথে বিবাদ বাধে মুদি দোকানদার নুরনবী মিয়ার। এক পর্যায় নুরনবী মিয়াকে মারধর করে ও মেরে ফেলার হুমকি দেয় মোছলেম উদ্দিন ও তার লোকজন। 

পরে গ্রাম্য সালিশে মোছলেম উদ্দিন ও তার ছোট ভাই রাশেদকে দোষী সাব্যস্ত করে বিরোধের মিমাংসা করে দেয়া হয়। এরপর নুরনবী এবং রাশেদের মধ্যে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। সেই সুবাদে রাশেদ প্রায়ই রাতে নুরনবীর মুদি দোকানে এক সাথে ঘুমাতো। 

২০০৪ সালের ২২ জানুয়ারি রাতেও রাশেদ ও নুরনবী দোকানে ঘুমিয়েছিল। কিন্তু পরদিন গলায় মাফলার পেঁচানো অবস্থায় নুুরনবীর মরদেহ উদ্ধার করে স্বজনরা। এই ঘটনায় নুরনবীর পিতা মোখলেছুর রহমান বাদী হয়ে চিলমারী থানায় ৯ জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।  

 

ACS/shimul