বিক্ষোভে উত্তাল শ্রীলঙ্কা, সংঘর্ষে এমপি নিহত

প্রকাশিত: ০৯-০৫-২০২২ ২২:১৭

আপডেট: ০৯-০৫-২০২২ ২৩:১৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: শ্রীলংকায় ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকট ও বিক্ষোভের মুখে প্রধানমন্ত্রীর পদ ছাড়লেন মাহিন্দা রাজাপাকসে। প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন তিনি। এদিকে, সোমবার কলম্বোতে সরকার সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় শ্রীলঙ্কার শাসক দলের একজন পার্লামেন্ট সদস্য নিহত হন। সংঘর্ষের প্রেক্ষিতে সারাদেশে কারফিউ জারি করা হয়েছে। এদিকে, দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী হতে প্রেসিডেন্টের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন বিরোধী দলের নেতা সাজিথ প্রেমাদাসা।

বিক্ষোভের মুখে শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিতে বাধ্য হলেন মাহিন্দা রাজাপাকসে। সোমবার দেশটির প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসের দপ্তরে পদত্যাগপত্র জমা দেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের পর মন্ত্রিসভা ভেঙ্গে দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট। তিনি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে নতুন মন্ত্রীসভা গঠন করতে পারেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো। 

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি, মাহিন্দা পদত্যাগ করার পরই দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভকারীদের উপর আক্রমণ চালায় শাসকদলের কর্মী-সমর্থকেরা। জবাবে শাসকদলের নেতাদের উপর হামলা চালায় বিক্ষোভকারীরা। এসময় ক্ষমতাসীন দলের একজন পার্লামেন্ট সদস্য অমরাকীর্তি আথুকুরালা নিহত হন। এছাড়াও শাসকদলের আরেক এমপি ও সাবেক মন্ত্রীর বাড়িতে আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে ক্ষুব্ধ জনতা। 

এর আগে, দেশটির রাজধানী কলম্বোয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সামনে সোমবার সরকার সমর্থক ও বিক্ষোভকারীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সহিংসতা ঠেকাতে টিয়ার গ্যাস ও জল কামান ব্যবহার করে পুলিশ। এসময় শতাধিক আহত হন। এ ঘটনার পর প্রথমে রাজধানী কলম্বোতে এবং পরে দেশজুড়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য কারফিউ জারি করা হয়। 

এদিকে, শ্রীলঙ্কার নতুন প্রধানমন্ত্রী হতে রাজি হননি বিরোধী দলের নেতা সাজিথ প্রেমাদাসা। প্রেসিডেন্ট তাকে অনুরোধ জানালেও তা প্রত্যাখান করেন প্রেমাদাসা। বিরোধী দলটি জানিয়েছে, রাজাপাকসে পরিবারের কারও সাথে সরকার পরিচালনায় যোগ দেবে না তারা। 

 

aleya/shimul