দরিদ্র পরিবারেই ক্যান্সার বেশি ছড়াচ্ছে

প্রকাশিত: ২১-০৫-২০২২ ১৪:১১

আপডেট: ২১-০৫-২০২২ ১৫:৪৭

লাবণী গুহ: একটা সময় ধারণা করা হতো অসংক্রামক রোগগুলো উচ্চবিত্তের মানুষদের মধ্যে বেশি হয়। কিন্তু জাতীয় ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের একটি প্রতিবেদন বলছে, বিশেষায়িত এই হাসপাতালটিতে চিকিৎসা নিতে আসা বেশিরভাগ রোগিই পেশায় দিনমজুর। হাসপাতালটিতে নিবন্ধিত রোগির তথ্য বিশ্লেষণ করে জানানো হয়, এই হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়াদের মধ্যে ৮৪ শতাংশই দরিদ্র বা নিম্নবিত্ত। 

বছর পাঁচেকের অমরিন। এমন নিশ্চিত ঘুম দেখলে কে বলতে পারে, মাথায় তীব্র যন্ত্রণা তার। ব্রেইন ক্যানসারের সাথে যুদ্ধ করছে দুই বছর ধরে। চুয়াডাঙ্গা থেকে ঢাকা পর্যন্ত বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে গিয়ে দিনমজুর পরিবারটির এরইমধ্যে খরচ হয়েছে ১২ লাখ টাকা।

শিশু থেকে বয়স্ক এমন অনেক রোগী জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে লড়ছে রাজধানীর জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে। কারো বা ব্লাড ক্যানসার, কারো গলায় টিউমার, কারো বা অন্ত্রে আবার বেশিরভাগ মহিলার জরায়ু ও ব্রেষ্ট ক্যানসার।

জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে প্রতিদিন যতো রোগী চিকিৎসা নিতে আসে, তাদের নিবন্ধন করা তথ্য থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়, বিশেষায়িত এই হাসপাতালে আসা রোগীদের ৮৪ শতাংশই নিম্নবিত্তের। ২০০৫ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ১২ বছরে নিবন্ধনকৃত রোগির তথ্য সংগ্রহ করা হয়।  

নিম্নবিত্তের মানুষের মধ্যে ক্যানসার বৃদ্ধির কারণ হিসেবে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে বাস এবং অসচেতনাকেই দায়ী করছেন এই বিশেষজ্ঞ। তিনি জানান, নিম্নবিত্তের মানুষদের মধ্যে অসংক্রামক রোগ কমাতে হলে প্রয়োজন সঠিক পরিবেশের ব্যবস্থা করা এবং তাদের সচেতন করা। 

LGR/sharif