ঘেরেই মারা যাচ্ছে বাগদা চিংড়ি

প্রকাশিত: ২২-০৫-২০২২ ০৮:১৩

আপডেট: ২২-০৫-২০২২ ১২:৩৩

বাগেরহাট সংবাদদাতা: বাগেরহাটে এক ধরনের ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছে ঘেরের বাগদা চিংড়ি। উৎপাদন মৌসুমের শুরুতে চিংড়ি মরে যাওয়ায় পুঁজি হারানোর শঙ্কায় চিংড়ি চাষীরা। অতিরিক্ত গরমে পানি কমে যাওয়া ও মৌসুমের শেষে ভাইরাসযুক্ত চিংড়ি ঘেরে ছাড়ার কারণে মাছ মারা যাচ্ছে বলে জানিয়েছে জেলা মৎস্য বিভাগ।

দেশের ‘সাদা সোনা’ হিসেবে খ্যাত বাগদা চিংড়ির বেশি চাষ হয় দক্ষিণের জেলা বাগেরহাটে। এবার জেলার ৯টি উপজেলায় ৬৬ হাজার ৭শ’ ১৩ হেক্টর জমিতে ৭৮ হাজার ৬শ’ ৮৫টি ঘেরে এই চিংড়ির চাষ হয়েছে। এরমধ্যে বেশি বাগদা চিংড়ির চাষ হয়েছে মোংলা, রামপাল, মোরেলগঞ্জ, বাগেরহাট সদর ও কচুয়া উপজেলায়। কিন্তু গেলো কয়েকদিন ধরে এসব উপজেলায় ব্যাপকহারে মারা যাচ্ছে চিংড়ি। এরইমধ্যে প্রায় ৮০ শতাংশ চিংড়ি মারা গেছে বলে দাবি ঘের মালিকদের।

চাষীরা জানালেন, কোনভাবেই বাগদা চিংড়ির মৃত্যু ঠেকানো যাচ্ছেনা। ফলে পুঁজি হারানোর শঙ্কায় দিশেহারা তারা। জেলা মৎস্য কির্মকর্তা এস. এম রাসেল জানিয়েছেন, ভাইরাসের পাশাপাশি ঘেরে পানির স্বল্পতা, অস্বাভাবিক তাপমাত্রা ও হঠাৎ বৃষ্টির কারণে চিংড়ি মরছে। ঘের প্রস্তুত ও ভাইরাসমুক্ত পোনা ছাড়তে চাষিদের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে বলেও জানান, এই মৎস্য কর্মকর্তা। 

ACS/sharif