কালকিনির ইউএনও-ওসিকে প্রত্যাহারের নির্দেশ

প্রকাশিত: ২৩-০৫-২০২২ ০০:৪৫

আপডেট: ২৩-০৫-২০২২ ০০:৪৫

মাদারীপুর সংবাদদাতা: নির্বাচনী দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতার জন্য মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. জাকির হোসেন ও কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসতিয়াক আশফাককে প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। 

উপজেলার পূর্ব এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিতে গিয়ে এক স্বতন্ত্র প্রার্থীর ওপর হামলার ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ পাওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রোববার (২২শে মে) ইসির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

১৭ই মে পূর্ব এনায়েতনগর ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময় প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মাহাবুব আলমের কর্মী-সমর্থকদের হামলার শিকার হন নেয়ামুল আকন। একই সময় দায়িত্বরত রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা দীপক বিশ্বাসকে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করা হয়। এ কারণে ওই দিনই নির্বাচন স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন। পাশাপাশি ঘটনা তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়।

নির্বাচন কমিশনের পরিচালক (জনসংযোগ) এস এম আসাদুজ্জামানের পাঠানোর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তার তদন্ত প্রতিবেদনে প্রাপ্ত তথ্য, দলিলাদি ও পর্যাবেক্ষণ পর্যালোচনা করে নির্বাচন কর্মকর্তা (বিশেষ বিধান) আইন ১৯৯১–এর ৩২৭ এর ধারা (৪) ও স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) নির্বাচন বিধিমালা, ২০১০ এর বিধি (৩) অনুযায়ী দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হওয়ায় কালকিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার করে উপযুক্ত কর্মকর্তা পদায়নের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়। এ ছাড়া ভোটের সুষ্ঠু পরিবেশ রক্ষায় ব্যর্থ ও সরকারি দায়িত্ব অবহেলার দায় এবং সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে প্রশাসনিক কারণে কালকিনি থানার ওসিকে প্রত্যাহার করে উপযুক্ত কর্মকর্তা পদায়নের জন্য নির্দেশ দেয় নির্বাচন কমিশন।

 

AR/shamim