ডলারের বিপরীতে বেড়েছে রুবলের মান

প্রকাশিত: ২৫-০৫-২০২২ ১০:৩৭

আপডেট: ২৫-০৫-২০২২ ১০:৩৭

অনলাইন ডেস্ক: ইউরোপের দেয়া একের পর এক নিষেধাজ্ঞার পরও অবিশ্বাস্যভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে রাশিয়ার মুদ্রা রুবল। ইউরোর বিপরীতে দেশটির মুদ্রার মান রেকর্ড গড়ার পর ডলারের বিপরীতেও চার বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে রুবল। মঙ্গলবার (২৪শে মে) গত চার বছরের মধ্যে প্রথমবার মার্কিন ডলারের বিপরীতে রুবলের মান ৫৭’র নিচে নেমেছে। ডলারের বিপরীতে রুবলের মান ছিল ৫৬ দশমিক ৩৬।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, ডলারের বিপরীতে রুবলের মান বেড়েছে প্রায় ৩০ শতাংশ। এর মাধ্যমে বিশ্বের সেরা পারফরম্যান্স করা মুদ্রায় পরিণত হয়েছে সেটি। এদিকে, ১ ইউরোর বিপরীতে রুবলের মান বেড়েছে ৬ দশমিক ৩ শতাংশ। এ সময় ১ ইউরো সমান ছিল ৫৮ দশমিক ৭৫ রুবল। ২০১৫ সালের জুনের শুরুর দিকের পর ইউরোর বিপরীতে রুবলের মান কখনোই এতটা বেশি ছিল না।

রুবলের মান বাড়ায় রাশিয়ার রপ্তানি আয়ে এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ারও আশঙ্কা রয়েছে। মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ নীতি কিছুটা শিথিল করলেও খুব শিগগির ডলারের বিপরীতে রুবলের মান ৫৫তে পৌঁছাতে পারে বলে জানিয়েছেন মস্কোভিত্তিক বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান লকেইনভেস্টের বিনিয়োগ বিভাগের প্রধান দিমিত্রি পোলেভয়।

রয়টার্স বলছে, মূলত রপ্তানিনির্ভর কোম্পানিগুলোর কারণে রুবলের মান বেড়েছে। ইউক্রেন যুদ্ধের জন্য পশ্চিমাদের নিষেধাজ্ঞায় রাশিয়া শর্ত দেয়, রপ্তানির জন্য বিদেশি মুদ্রা অবশ্যই দেশীয় মুদ্রা রবলে রূপান্তর করে তারপর মূল্য পরিশোধ করতে হবে। এতে রুবলের চাহিদা বেড়ে যায়। এ কারণে চাহিদা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এর মানও বেড়ে যায়।

টিনকঅফ ইনভেস্টমেন্ট নামে একটি বাজার বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠানের বিশ্লেষকেরা বলছেন, রাশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও সরকার যখন এসব শর্ত ও বিধিনিষেধ দিতে শুরু করে, তখন থেকেই মাঝারি পর্যায়ে রাশিয়ার মুদ্রা রুবলের মান বাড়তে শুরু করে। 

রয়টার্স আরও বলছে, মূলত রপ্তানিনির্ভর কোম্পানিগুলোর কারণে রুবলের মান বেড়েছে। ইউক্রেন যুদ্ধের জন্য পশ্চিমাদের নিষেধাজ্ঞায় রাশিয়ার অর্ধেক সোনা ও বৈদেশিক মুদ্রার মজুত জব্দ হয়ে যায়। কিন্তু পাল্টা পদক্ষেপ নেয় মস্কো। রাশিয়া শর্ত দেয়, রপ্তানির জন্য বিদেশি মুদ্রা অবশ্যই দেশীয় মুদ্রা রবলে রূপান্তর করে তারপর মূল্য পরিশোধ করতে হবে। এতে রুবলের চাহিদা বেড়ে যায়। এ কারণে চাহিদা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এর মানও বেড়ে যায়।

অবশ্য রাশিয়ার ব্যাংকগুলোতে রুবলের মান এখনো আগের মতোই রয়েছে। এসবার ব্যাংক থেকে ৫৮ দশমিক ২০ রুবলে এক ডলার এবং ৬০ দশমিক ৩৮ রুবলে এক ইউরো বিক্রি করা হচ্ছে। টিনকঅফ ইনভেস্টমেন্ট নামে একটি বাজার বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠানের বিশ্লেষকেরা বলছেন, রাশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও সরকার যখন এসব শর্ত ও বিধিনিষেধ দিতে শুরু করে, তখন থেকেই মাঝারি পর্যায়ে রাশিয়ার মুদ্রা রুবলের মান বাড়তে শুরু করে। 

বিশ্লেষকরা বলছেন, শরৎকাল আসতে আসতে বিনিময়ের হার স্থিতিশীল হতে শুরু করবে। তখন আবারও ১ ইউরোর বিপরীতে রুবল ৬০ থেকে ৬৫ পর্যন্ত উঠবে। কারণ, ওই সময় আসতে আসতে আমদানি আবার আগের অবস্থানে ফিরে যাবে এবং যেসব নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে, সেগুলোও প্রত্যাহার করা হতে পারে।

rocky/sharif