স্ত্রীকে হত্যা করে থানায় স্বামী!

প্রকাশিত: ১৬-০৬-২০২২ ১৩:৩৩

আপডেট: ১৬-০৬-২০২২ ১৩:৩৩

কুষ্টিয়া সংবাদদাতা: কুষ্টিয়ায় এক ব্যক্তি নিজ হাতে স্ত্রীকে হত্যার পর থানায় এসে পুলিশের কাছে ধরা দিয়েছেন। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। পরে ঘটনার সত্যতা পেয়ে দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শহরেরর কোটপাড়া এলাকার রনি নামের ওই ব্যক্তি থানায় এসে নিজ স্ত্রীকে হত্যা করে এসেছেন বলে পুলিশকে জানায়। বিষয়টি প্রথমে পুলিশ আমলে নেয়নি। এরপর লোকটি বললেন, ‘আমাকে সঙ্গে নিয়ে আমার বাসায় চলেন, মরদেহ দেখাব। পরে পুলিশ ওই ব্যক্তির বাসায় গিয়ে গৃহবধু রত্না খাতুনের (৩০) মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহত রত্না খাতুন মিরপুর উপজেলার চারমাইল এলাকার নাজিম উদ্দিনের মেয়ে ও দুই সন্তানের জননী। আটক রনি কুষ্টিয়া সদর উপজেলা বটতৈল ইউনিয়নের বটতৈল এলাকার মৃত আলতাফ হোসেনের ছেলে। নিহতের পিতা নাজিম উদ্দিন বলেন, ২০০৭ সালে পারিবারিকভাবে রনির সাথে বিয়ে হয় রত্নার। তাদের দু'টি মেয়ে সন্তান রয়েছে। পারিবারিক কলহের জেরে পরিকল্পিতভাবে রনি ও তার মা শ্বাসরোধ করে রত্নাকে হত্যা করে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ওই নারীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অপরাধে তার স্বামী ও শ্বাশুড়িকে আটক করা হয়েছে। পারিবারিক কলহের জেরে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

MNU/sharif