চট্টগ্রামে পাহাড় ধসে ৪ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত: ১৮-০৬-২০২২ ০৮:৪১

আপডেট: ১৮-০৬-২০২২ ১৭:৩৫

চট্টগ্রাম প্রতিবেদক: চট্টগ্রামের আকবর শাহ এলাকায় পৃথক দু'টি পাহাড় ধসের ঘটনায় দুই বোনসহ চারজন নিহত ও ১১ জন আহত হয়েছেন। শুক্রবার রাতে আকবর শাহ থানার বরিশাল ঘোনা ও ফয়েস লেকে দুটি পাহাড় ধসের ঘটনায় এ প্রাণহানি হয়। আজ (শনিবার) দুপুরে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের জানান, পাহাড়ে বসবাসকারীদের আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে।

গত কয়েকদিন ধরে চট্টগ্রামে টানা বৃষ্টি হচ্ছে। এর ফলে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠে পাহাড়ের পাদদেশে বাড়িঘর তৈরি করে থাকা মানুষদের জীবন। বৃষ্টি শুরু পর থেকে জেলা প্রশাসন চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়ী এলাকাগুলোয় বসবাসরত মানুষদের মাইকিং করে সরে যেতে বলে।

এদিকে, শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে নগরীর আকবর শাহ থানার বরিশাল ঘোনা এলাকায় একটি পাহাড় ধসে পড়ে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও সাধারণ মানুষ ছুটে যায়। এসময় সেখান থেকে পাঁচজনকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। কিন্তু হাসপাতালে পাঠানোর পর চিকিৎসক দুই বোন শাহিনুর আক্তার  ও মাইনুল আক্তারকে মৃত ঘোষণা করেন।

পরে রাত তিনটার দিকে আকবরশাহ থানার ফয়েসলেকের বিজয় নগর এলাকায় আরেকটি পাহাড় ধসে লিটন  ও ইমন নামে দুইজনের মৃত্যু হয়। ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মুমিনুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসকারী সকলকে আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। পাহাড়ে বসবাসরত মানুষদের জন্য নগরীতে ১৯টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

পাহাড় ধসের ঘটনায় নিহতদের পরিবারকে ২৫ হাজার ও আহতদেরকে ১৫ হাজার টাকা করে তাৎণিক ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। 

MHS/ramen