পবিত্র হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু

প্রকাশিত: ০৭-০৭-২০২২ ১১:৫১

আপডেট: ০৭-০৭-২০২২ ১৬:৩০

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামীকাল পবিত্র হজ। লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসলি­র ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’ ধ্বনিতে মুখরিত হবে আরাফাতের ময়দান। এরিমধ্যে মক্কায় পবিত্র কাবা শরীফে তাওয়াফ করে মিনায় উপস্থিত হয়েছেন হাজিরা। আজ দিনভর মিনায় ইবাদত বন্দেগির পর কাল ফজরের নামাজ শেষে আরাফাতের ময়দানে জড়ো হবেন তারা।

দুই বছর পর লাখো হাজির ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’  ধ্বনিতে মুখর মিনার পথ প্রান্তর। বুধবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যার পর এহরাম বেঁধে মক্কা থেকে ৯ কিলোমিটার দূরে মিনার উদ্দেশ্যে রওনা হন সারাবিশ্ব থেকে আসা ১০ লাখ মুসল্লি­। বৃহস্পতিবার জোহরের আগেই সেখানে উপস্থিত হয়ে দিনভর নামাজ আদায় ও ইবাদতে মশগুল থাকবেন হাজিরা।

শুক্রবার ফজরের নামাজ শেষে হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা পালনে মিনা থেকে ১৪ কিলোমিটার দূরে আরাফাতের ময়দানে উপস্থিত হবেন আল্লাহর মেহমানরা। সেখানে মসজিদে নামিরা থেকে হজের খুতবা দেবেন শায়খ ড. মুহাম্মাদ আবদুল করীম আল-ঈসা। এবছর হজের আরবি খুতবা বাংলাসহ ১৪টি ভাষায় অনুবাদ করে সম্প্রচার করবে সৌদি টেলিভিশন।

খুতবার পর এক আজানে জোহর ও আছর নামাজ আদায় করবেন ধর্মপ্রান মুসল্লি­রা। দিনভর আরাফাতের ময়দানে অবস্থান শেষে সুর্যাস্তের পর ৮ কিলোমিটার দূরে মুজদালিফায় গিয়ে আবারো এক আজানে মাগরিব ও এশার নামাজ আদায় করবেন এবং পাথর সংগ্রহ করবেন। পরদিন ১০ই জিলহজ মিনায় ফিরে আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য পশু কোরবানি ও শয়তানকে পাথর নিক্ষেপ এবং মাথার চুল ছেঁটে ফেলবেন। এরপর মক্কায় গিয়ে পবিত্র কাবা শরিফ বিদায়ী তাওয়াফ ও সাঈ করবেন হাজিরা। 

অতিমারী করোনাভাইরাসের কারণে গত দু’বছর সীমিত পরিসরে হজের আয়োজন করে সৌদি আরব। এবার সংক্রমণ কমে আসায় বিদেশীদেরও হজ পালনের অনুমতি দেয়া হয়। এবছর ১০ লাখ অংশগ্রহণকারীর মধ্যে সাড়ে ৮ লাখ বিদেশি, বাকি দেড় লাখ সৌদির নাগরিক।

NHK/sharif