স্ত্রীর সাথে পরকীয়া সন্দেহে যুবককে হত্যা

প্রকাশিত: ০৭-০৭-২০২২ ১৬:৩৭

আপডেট: ০৭-০৭-২০২২ ১৬:৩৭

শেরপুর সংবাদদাতা: স্ত্রীর সাথে পরকীয়ার সন্দেহে শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে আবু সাইদ নামে এক প্রতিবেশী যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। গত বুধবার (২৯শে জুন) দিবাগত রাতে উপজেলার পশ্চিম গেরাপচা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃত ওই ব্যক্তির নাম মাহফুজুর রহমান (৪৫)। তিনি উপজেলার গেরাপচা গ্রামের ইমান আলীর ছেলে। নিহত আবু সাইদ (২৬) একই গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ জানান, মাহফুজুর রহমান প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন। তিনি জানান, প্রায় তিন বছর আগে মাহফুজের স্ত্রী মিনারা ওমানে যান। পরে দু'বছরের প্রবাস জীবন কাটিয়ে দেশে ফিরেন মিনারা। দেশে ফিরে স্বামীর সাথে বনিবনা না হওয়ায় বছর খানেক আগে মাহফুজুরকে তালাক দিয়ে তাঁর স্ত্রী বাবার বাড়ী দিনাজপুরে চলে যান। 

মাহফুজুর পুলিশকে জানান, স্ত্রী চলে যাওয়ায় তিনি আবু সাইদ নামে এক যুবককে সন্দেহ করতেন। তাই প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য তিনি সাইদের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক গড়ে তোলেন। পরে গত বুধবার (২৯শে জুন) রাতে পরিকল্পিতভাবে তিনি মাছ ধরার কথা বলে সাইদকে সঙ্গে নিয়ে বিলে যান। পরে একসঙ্গে ফিরে তাঁরা স্থানীয় একটি দোকানে চা পান করেন। সেখান থেকে ফেরার সময় কথা বলার ছলে মাহফুজুর সাইদকে ডেকে নিয়ে আকস্মিকভাবে ঘাড়ের পেছনে দা দিয়ে পরপর দু'টি কোপ মারেন। এতে সাইদের ঘাড়ের পেছনের অংশ পুরোপুরি কেটে মাথা প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

এসময় সাইদের চিৎকার শুনে আশপাশের মানুষ এসে তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানকার চিকিৎসক সাইদকে মৃত ঘোষণা করেন। আজ বৃহষ্পতিবার (০৭ই জুলাই) সকালে নিহত আবু সাইদের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য শেরপুর মর্গে পাঠানো হয়। পরে নিহত আবু সাইদের বাবা নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে  নালিতাবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করেছেন বলে জানান নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বছির আহম্মেদ বাদল।

lamia/sharif