আত্মরক্ষায় তাইওয়ানকে সহযোগিতা দেবে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত: ০৩-০৮-২০২২ ১২:০৩

আপডেট: ০৩-০৮-২০২২ ১২:০৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্র সবসময় তাইওয়ানের পাশে আছে বলে জানালেন যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি। তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং ওয়েনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এসব কথা বলেন তিনি। বুধবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি।

সাক্ষাৎকালে পেলোসি বলেন, তার প্রতিনিধি দল তাইওয়ানে এসেছে বন্ধুত্বের খাতিরে। এই অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠাই তার লক্ষ্য। মূলত তার সফরকে কেন্দ্র করে বেইজিংয়ের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া এবং কূটনৈতিক অগ্নিঝড় শুরুর পর পেলোসি এই মন্তব্য করলেন। তাইওয়ানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠকে পেলোসি ওয়াশিংটনের সব ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখারও কথা জানান।

তিনি বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সর্বদা তাইওয়ানের সঙ্গে দাঁড়ানোর প্রতিশ্র“তি দিয়েছিল। ১৯৭৯ সালে তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে একটি আইন পাস হয়। এটি এমন একটি আইন, যা অনুযায়ি দ্বীপটিকে আত্মরক্ষা করায় সহায়তা করতে বাধ্য ওয়াশিংটন। 

তিনি আরও বলেন, ‘আজ আমাদের প্রতিনিধি দল তাইওয়ানে এসেছে দ্ব্যর্থহীনভাবে স্পষ্ট করে দিতে যে, আমরা তাইওয়ানের প্রতি আমাদের প্রতিশ্র“তি ভঙ্গ করবো না। একই সঙ্গে আমরা আমাদের স্থায়ী বন্ধুত্বের জন্য গর্বিত।’

পেলোসি বলেন, তাইওয়ানের সঙ্গে আমেরিকার সংহতি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাতে তাইওয়ানে পৌঁছান পেলোসি।

 

MNU/joy