গণপরিবহন সংকটে দেশজুড়ে ভোগান্তি

প্রকাশিত: ০৬-০৮-২০২২ ১৪:২৩

আপডেট: ০৬-০৮-২০২২ ২১:২৭

ডেস্ক প্রতিবেদন: জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে সারাদেশেই গণপরিবহন চলাচল কমে গেছে। চট্টগ্রামসহ কয়েক জেলায় বাস বন্ধ রেখেছে মালিক-শ্রমিকরা। আবার বিভিন্ন স্থানে বাস চালাতে শ্রমিকরা বাধা দিচ্ছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। গণপরিবহন না পেয়ে দুর্ভোগে পড়েছে কর্মজীবী মানুষ। কোথাও বাড়তি ভাড়া দিয়ে আবার কখনও পায়ে হেঁটে, গন্তব্যে যেতে হচ্ছে।

হঠাৎ করে সব ধরনের জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোয় সারাদেশে নগর পরিবহন, দূরপাল্লা ও আঞ্চলিক রুটে গণপরিবহন কমে গেছে। এতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সাধারণ মানুষের।

চট্টগ্রাম মহানগরীতে আজ শনিবার (৬ই আগস্ট) সকাল থেকেই গণপরিবহন বন্ধ করে দেন মালিক-শ্রমিকরা। ভাড়া না বাড়ানো পর্যন্ত বাস বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পরিবহন মালিক গ্র“প। কিছু গণ পরিবহন চললেও শ্রমিকদের বাধার মুখে পড়তে হচ্ছে। পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।  এতে চরম বিপাকে পড়তে হচ্ছে অফিসগামী ও সাধারণ মানুষকে। তবে শনিবার দুপুরে বিআরটিএ কর্মকর্তাদের অনুরোধে বাস বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে নেয় মালিকপক্ষ। 

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পরিবহন মালিক গ্র“পের সভাপতি বেলায়েত হোসেন বেলাল জানান, তেলের দাম যে হারে বাড়ানো হয়েছে তা অযৌক্তিক।

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর রাজশাহীতে অনেক মালিক বাস চলাচল বন্ধ রেখেছেন। বাসের নতুন ভাড়া নির্ধারণের অপেক্ষা করছেন তারা।

খুলনায় বিভিন্ন রুটে পরিবহনে নিধারিত ভাড়ার চেয়ে বেশি আদায় করা হচ্ছে। এ নিয়ে যাত্রীদের সাথে পরিবহন শ্রমিকদের বাক-বিতণ্ডা হয়। দূরপাল্লার বাসের সংখ্যা কমিয়ে দিয়েছে মালিকরা।

বরিশালে দূরপাল্লা ও অভ্যন্তরীণ রুটে বাস চালু থাকলেও বেশি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।

তেলের দাম বাড়ায় যানবাহনের সংকট দেখা দিয়েছে ময়মনসিংহ ও সিলেটেও।

 

MNU/shamim