পুঁজিবাজারে তেজীভাব, সূচকও ঊর্ধ্বমুখি

প্রকাশিত: ০২-০৯-২০২২ ১৪:২৯

আপডেট: ০২-০৯-২০২২ ১৬:৪৫

নিজস্ব প্রতিবেদক: গেল মাসের শেষ দুই সপ্তাহ দেশের পুঁজিবাজারে তেজী ভাব ছিল। যে ধারা সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস- সেপ্টেম্বরের প্রথম দিনেও বহাল থাকে।  এসময় মোট লেনদেন ও সূচক ক্রমাগত বেড়েছে। পুঁজিবাজারে ভালো প্রতিষ্ঠান তেমন সক্রিয় না। বেশিরভাগ ছোট প্রতিষ্ঠানের শোয়রের দাম বাড়ছে। টানা ঊর্ধ্বমুখি থাকলেই বাজারকে স্বাভাবিক বলা যাবে না বলে মনে করেন অর্থনীতিবিদরা।

চলতি বছরের মার্চ মাস থেকেই অস্বাভাবিক ভাবে দরপতন হয় দেশের পুঁজিবাজারে।  দরপতন রোধে সরকারের নানা উদ্যোগেও তেমন প্রভাব পড়ছিল না বাজারে। অবশেষে দরপতন ঠেকাতে সম্প্রতি শেয়ারের দামের সর্বনিম্ন সীমা বেঁধে দেয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি। এর পর থেকেই ডিএসই’র প্রধান মূল্য সূচক ও লেনদেন উধ্বমুখি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। গত ১৩ কার্যদিবসের মধ্যে ১২ কার্যদিবসের লেনদেন ও সূচক বেড়েছে। গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস ডিএসই’র প্রধান মূল্য সূচক ৫১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৫০৮ পয়েন্টে।

বাজার টানা উপরে উঠা বা টানা নামা কোনটাই স্বাভাবিক নয় বলে মনে করেন অর্থনীতিবিদ হেলাল উদ্দিন। ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের সতর্ক থেকে লেনদেন করার পরামর্শ দেন তিনি। 

পুঁজিবাজারে ভালো কোম্পানির চেয়ে খারাপ কোম্পানি বেশি তালিকাভুক্ত হচ্ছে। কোম্পানি তালিকাভুক্ত করার আগে যাচাই বাছাই করার পরামর্শ দিয়েছেন এই অর্থনীতিবিদ। বাজার স্বাভাবিক করতে নিয়ন্ত্রক সংস্থার সক্ষমতা বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন তিনি।

Nijhum/sharif