রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ে ভারতকে হারিয়েছে পাকিস্তান

প্রকাশিত: ০৫-০৯-২০২২ ০০:২২

আপডেট: ০৫-০৯-২০২২ ০১:৩৫

ক্রীড়া ডেস্ক: চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে গ্রুপপর্বে হার দিয়ে এশিয়া কাপ শুরু হয়েছিল পাকিস্তানের। সুপার ফোরে এসে সেই হারের প্রতিশোধ নিয়ে নিলো তারা। রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ে শেষ ওভার পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে শেষ হাসি হাসে পাকিস্তান। দুবাইয়ে রোববার সুপার ফোরের ম্যাচে ভারতকে ৫ উইকেট হাতে রেখে হারিয়েছে পাকিস্তান।

ভারতের দেওয়া ১৮২ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে নিজের ইনিংস খুব একটা লম্বা করতে পারেননি পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। ১০ বলে ১৪ রান আসে তার ব্যাট থেকে, রবি বিষ্ণয়ের বলে রোহিত শর্মার হাতে ক্যাচ দেন তিনি। এরপর ১৮ বলে ১৫ রান করে চাহালের বলে কোহলির হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন ফখর জামানও।

তবে বাবরের উদ্বোধনী সঙ্গী মোহাম্মদ রিজওয়ান ঠিকই ফিফটি তুলে নেন। মাঝে তাকে দারুণ সঙ্গ দেন নেওয়াজ। তার ঝড়ো ব্যাটে জয় আসবে এমন প্রত্যাশাও ছিল। ৬ চার ও ২ ছক্কায় ২০ বলে ৪২ রান করে ভুবনেশ্বর কুমারের বলে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি।  

এদিকে ৬ চার ও ২ ছক্কায় ৫১ বলে ৭১ রান করে আউট হয়ে যান রিজওয়ানও। সূর্যকুমার যাদবের হাতে তিনি ক্যাচ দেন হার্দিক পান্ডিয়ার বলে। তার বিদায়ের পর পাকিস্তানকে জয়ের বন্দরে পৌঁছানোর মূল কাজটা করেন আসিফ আলি। ২ চার ও ১ ছক্কায় ৮ বলে ১৬ রান করেন তিনি।

দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে উড়ন্ত শুরু করে ভারত। আগের ম্যাচগুলোতে ভারতের ওপেনিং জুটি সেভাবে ক্লিক করেনি। তবে আজ রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুল মিলে শুরুর জুটিতেই তোলেন ৫৪ রান।

ষষ্ঠ ওভারে এই জুটি ভাঙেন হারিস রউফ। পাকিস্তানি পেসারের বলে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে খুশদিল শাহের হাতে ক্যাচ দেন রোহিত। বিদায় নেন ১৬ বলে ২৮ রান করে। রোহিত ফেরার পর স্থায়ী হলেন না রাহুলও। ঠিক ২৮ রানের মাথায় তাঁকেও বিদায় কঢ়ে পাকিস্তান। শাদাব খানের বলে আউট হওয়ার আগে তিনি ২০ বলে করেন ২৮।

আগের ম্যাচে ঝড় তোলা যাদব এই ম্যাচে থিতু হতে পারেননি। জ্বলে ওঠার আগেই তাঁকে থামান মোহাম্মদ নেওয়াজ। তবে টিকে যান পুরোনো ছন্দে ফেরার আভাস দেওয়া কোহলি। পন্থের সঙ্গে কিছুক্ষণ দলকে এগিয়ে নেন তিনি। তবে এই জুটিকেও বড় হতে দেননি শাদাব খান। ১৪ রানে পন্থকে নিজের শিকার বানান শাদাব। উইকেটে টিকতে পারেননি পান্ডিয়াও। তবে থিতু হয়ে ছিলেন কোহলি। তাঁর ব্যাটে চড়ে ভারত পায় শক্ত পুঁজি।

বল হাতে পাকিস্তানের সব বোলারই উইকেট পেয়েছেন। ২ উইকেট ঝুলিতে পুরেছেন শাদাব। আর নাসিম, হাসনাইন, হারিস ও নওয়াজ পেয়েছেন ১টি করে উইকেট।

 

MNU/nasir