দিল্লিতে শেখ হাসিনাকে উষ্ণ অভ্যর্থনা

প্রকাশিত: ০৫-০৯-২০২২ ০৮:৫১

আপডেট: ০৬-০৯-২০২২ ০৯:১০

নিজস্ব প্রতিবেদক: চারদিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে পৌঁছেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার (৫ই সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় বেলা ১২টায় তাকে বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ভিভিআইপি ফ্লাইটটি দিল্লির পালাম বিমানবন্দরে পৌঁছায়। দিল্লিতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে ভারতের রেল ও বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী দর্শনা বিক্রম এবং ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মুহাম্মদ ইমরান অভ্যর্থনা জানান।

এর আগে, সোমবার (৫ই সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ভিভিআইপি চার্টার্ড ফ্লাইটটি ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সফরকালে ভারতের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং উপ-রাষ্ট্রপতির সঙ্গে  বৈঠক করবেন। ভারত সফরের সময় ৭টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সোমবার দিল্লি পৌঁছার পর শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করবেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। এরপর বিকেলে নিজামউদ্দিন আউলিয়ার মাজারে যাবেন শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার ৬ই সেপ্টেম্বর রাষ্ট্রপতি ভবনে গার্ড অব অনারের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানানো হবে। এরপর শেখ হাসিনা দিল্লির রাজঘাটে মাহাত্মা গান্ধীর সমাধিস্থলে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন।

তারপর রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন হায়দ্রাবাদ হাউজে হাসিনা-মোদীর দ্বিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। এ সময় তাদের মধ্যে একান্ত বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর পর্যায়ের ওই বৈঠকেই বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের সব বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

বৈঠকে সাতটি চুক্তি বা সমঝোতা স্মারক সই হতে পারে জানিয়ে তিনি বলেন, এসব চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক পানি ব্যবস্থাপনা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি,  রেলওয়ে, আইন, তথ্য ও সম্প্রচার, প্রভৃতি ক্ষেত্রে সহযোগিতা সম্পর্কিত।

 

পরে দু’দেশের প্রধানমন্ত্রী একটি যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করবেন।

ভারতের রাষ্ট্রপতি, উপ-রাষ্ট্রপতির সঙ্গেও শেখ হাসিনার বৈঠকের কর্মসূচি রয়েছে।

এবারের সফরে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে যেসব ভারতীয় সেনাসদস্য শহীদ হয়েছেন বা আহত হয়েছেন, তাদের পরিবারের সদস্যদের মধ্যে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্টুডেন্ট স্কলারশিপ’ তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

তৃতীয় দিন ৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ও ভারতের ব্যবসায়িক প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে একটি অনুষ্ঠানে  যোগ দেবেন শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে থাকা বাংলাদেশের একটি ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দলও সেখানে থাকবে।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী, বাণিজ্যমন্ত্রী, রেলপথমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর অর্থনীতি বিষয়ক উপদেষ্টা, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী, পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলে থাকছেন।

সফর শেষে ৮ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরবেন শেখ হাসিনা।

সর্বশেষ ২০১৯ সালে শেখ হাসিনা দ্বিপক্ষীয় সফরে ভারত গিয়েছিলেন। বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গত বছর ঢাকায় এসেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

 

/sanchita