ভূমিকম্পে চীন ও আফগানিস্তানে ১৫ মৃত্যু

প্রকাশিত: ০৫-০৯-২০২২ ২০:২২

আপডেট: ০৫-০৯-২০২২ ২০:২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভয়াবহ দুর্যোগের মুখোমুখি এশিয়ার কয়েকটি দেশ। একদিকে বৃষ্টি ও বন্যার দুর্ভোগ অপরদিকে আঘাত হেনেছে ভূমিকম্প। প্রবল বৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যায় বিপর্যস্ত পাকিস্তান।ভারতে বেঙ্গালুরুতেও বৃষ্টির কারণে বন্যা হয়েছে। আর ভূমিকম্পের কারণে চীন ও আফগানিস্তানে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ১৫ জনের। এদিকে, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান ও চীনে আছড়ে পড়ছে শক্তিশালী টাইফুন হিনামনর। সুনামির সর্তকতা জারি করা হয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানে। 

প্রবল বন্যার কবলে দক্ষিণ এশিয়ার দেশ পাকিস্তান। বাড়ছে মৃত্যু ও ক্ষয়ক্ষতি। এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা তেরোশ’ ছাড়িয়েছে। যাদের সাড়ে চারশোই শিশু। আশ্রয়কেন্দ্রে রয়েছে ৩০ লাখের বেশি মানুষ। যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙে ব্যাহত হচ্ছে ত্রাণ ও খাদ্য সহায়তা। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত সিন্ধু ও বেলুচিস্তান প্রদেশ। সিন্ধু প্রদেশের বৃহত্তর মানচার হ্রদের পানি বেড়ে বিপজ্জ্বনক পর্যায়ে পৌঁছেছে। 

ভারতের বেঙ্গালুরুতে প্রবল বৃষ্টিতে কয়েকটি এলাকায় বন্যা হয়েছে। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্তবেলান্দুর, সারজাপুরা রোড, হোয়াইটফিল্ড, আউটার রিং রোড এবং বিইএমএল লেআউট এলাকাগুলো। সরিয়ে নেয়া হয়েছে সেখানকার বাসিন্দাদের। 

এদিকে, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান ও চীনে শক্তিশালী টাইফুন হিনামনরের কারণে প্রবল বাতাস ও ভারী বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। দেশগুলোরদুর্যোগপূর্ণ এলাকায় বন্ধ করা হয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। স্থগিত করা হয়েছে ফ্লাইট। সর্তক করা হয়েছে সেখানকার সমুদ্র বন্দরগুলোকেও। দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের উপকূলীয় অঞ্চলে সুনামি ও বন্যার সর্তকতা জারি করেছে আবহাওয়া বিভাগ।

অপরদিকে, ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছে চীন ও আফগানিস্তান। চীনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় সিচুয়ান প্রদেশে স্থানীয় সময় সোমবার দুপুর একটার দিকে আঘাত হানে ভূমিকম্পটি। ৬.৬ মাত্রার এই ভূমিকম্পে ৭ জন নিহত হয়েছে। ভোরে আফগানিস্তানের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে৫.৩ মাত্রার ভূমিকম্প হয়েছে।এতে প্রাণ হারিয়েছে অন্তত ৮ জন।

 

munia/shimul